বঙ্গবন্ধুর খুনিদের নিরাপদে দেশ ছাড়তে জিয়াউর রহমানই সব ব্যবস্থা করেছিলেন বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। জিয়াই তাদের দূতাবাসে চাকরি দেয়ার পাশাপাশি বিচার বন্ধে সব উদ্যোগ নিয়েছিলেন বলেও জানান তিনি।

সোমবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি মিলনায়তনে কানাডায় অবস্থানরত বঙ্গবন্ধুর আত্মস্বীকৃত খুনি নূর চৌধুরীকে দেশে ফিরিয়ে আনার দাবিতে অনলাইনে স্বাক্ষর সংগ্রহ কর্মসূচির উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তিনি একথা বলেন।

বঙ্গবন্ধুর দুই পলাতক খুনি নূর চৌধুরী আর রাশেদ চৌধুরীকে ফেরাতে কানাডা ও যুক্তরাষ্ট্রে মামলা চলছে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

কাদের বলেন, খুনি নূর চৌধূরীরকে ফিরিয়ে আনতে কানাডা সরকার আর খুনি রাশেদ চৌধুরীকে ফিরিয়ে আনতে যুক্তরাষ্ট্র সরকারের সঙ্গে আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে সরকার।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ১৫ই আগস্টের মঞ্চের আর নেপথ্যের খুনিরা এখন সামনে চলে এসেছে। এ হত্যাকাণ্ডের পরপরই খুনি ডালিমকে জিয়াউর রহমানের স্বাগত জানানোর কথোপকথন থেকেই পরিস্কার যে এর নেপথ্যে জিয়া ছিলেন।

বিএনপি নেতাদের প্রতি প্রশ্ন ছুড়ে দিয়ে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, বঙ্গবন্ধুর খুনিদের ইনডেমনিটি আর বিদেশে চাকরি দিয়ে কেন প্রতিষ্ঠিত করেছিলেন জিয়াউর রহমান।

অনুষ্ঠানে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম, সাবেক পররাষ্ট্র মন্ত্রী দীপু মনিসহ বিশিষ্টজনেরা উপস্থিত ছিলেন।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here