পবিত্র আশুরা উপলক্ষে তাজিয়া মিছিলে সুনির্দিষ্ট কোনো হুমকি না থাকলেও সর্বোচ্চ সর্তকতা জারি করা হবে বলে জানিয়েছেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া।

মঙ্গলবার সকাল ১১ টায় রাজধানীর লালবাগ থানাধীন হোসেনী দালান ইমামবাড়ায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের এসব তথ্য জানান ডিএমপি কমিশনার।

কমিশনার বলেন, ‘এই মিছিলকে ঘিরে বিশেষ ভাবে কাজ করবে সোয়াট টিম, ক্রাইম সিম, বোম ডিসপোজাল ইউনিট ও ডগস্কোয়াড। কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট এবং গোয়েন্দারা সব সময় নিয়োজিত থাকবে। মিছিলকে কেন্দ্র করে সকল ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়ানোর জন্য পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। ‘

কমিশনার বলেন, ‘অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে এবার শিয়া মতাবলম্বি মুসলমানদের তাজিয়া মিছিলে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা দেবে ঢাকা মহানগর পুলিশ। মিছিলে অংশগ্রহণ করতে হলে নিরাপত্তার স্বার্থে সকলকে যেতে হবে তল্লাশী পেরিয়ে। থাকবে সিসি ক্যামেরা ও পুলিশের কড়া প্রহরা।’

তিনি বলেন, ‘আইনশৃঙ্খলায় নিয়োজিত অন্য বাহিনীর সাথে সমন্বয় করে নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হবে।’

আসাদুজ্জামান মিয়া বলেন, ‘পবিত্র মিছিলে জিঞ্জিরা, দা, সুরি, তলোয়ার, ঢোল, লাঠি খেলা, আগুন খেলা ইত্যাদি নিয়ে মিছিলে অংশগ্রহণ করা সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। সেইসঙ্গে আতশবাজি ঢাকঢোল বাদ্যযন্ত্র ব্যবহার করতে দেয়া হবে না।’

তিনি বলেন, ‘হ্যান্ড ব্যাগ, টিফিন ক্যারিয়ার বহন করতে পারবে না এবং এসব রাস্তার পাশের কোনো মেলা বসতে দেওয়া হবে না। জনসাধারণের নিরাপত্তা জন্য এসব ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।’

কমিশনার বলেন, ‘হোসনী দালান, বিবিকা রওজাসহ রাজধানীতে মিছিল যাবার প্রত্যেকটি পথে সিসি ক্যামেরা লাগানো হয়েছে। পোশাকে ও সাদা পোশাকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা মোতায়েন থাকবে।’

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন কাউন্টার টেরোরিজম প্রধান অতিরিক্ত কমিশনার মনিরুল ইসলাম, কৃঞ্চপদ রায়, যুগ্ম কমিশনার শেখ নাজমুল আলম, মফিজ উদ্দিন আহমেদ, উপ-কমিশনার(সিটি) প্রলয় কুমার জোয়ার্দার, উপ-কমিশনার ডিএমপি মাসুদুর রহমান, রেজাউল করিম, ওবায়দুর রহমান প্রমুখ।

উল্লেখ্য, আগামী (২১ সেপ্টেম্বর) আশুরা ‍উপলক্ষে হোসেনি দালানসহ রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় তাজিয়া মিছিল শুরু হয়ে ধানমন্ডি লেকে গিয়ে শেষ হওয়ার কথা রয়েছে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here