রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ বলেছেন, ফোরাত নদীর পূর্ব তীরের ওপর মার্কিন নিয়ন্ত্রণ থাকাটাই হচ্ছে সিরিয়ার ভৌগোলিক অখণ্ডতার জন্য সবচেয়ে বড় হুমকি। বসনিয়া হারজেগোভিনার রাজধানী সারায়েভো সফরে গিয়ে ল্যাভরভ আজ (শুক্রবার) এসব কথা বলেছেন।

তিনি বলেন, সিরিয়ার ইদলিবে বেসামরিক বাফার জোন প্রতিষ্ঠার জন্য রাশিয়া ও তুরস্ক সম্মত হয়েছে এই কারণে যে, যাতে সেখানকার উগ্র সন্ত্রাসী গোষ্ঠীগুলোকে সরিয়ে নেয়া যায়। আগামী অক্টোবরের মাঝামাঝি সময়ের মধ্যে এসব সন্ত্রাসীকে সরিয়ে নিতে হবে।

মার্কিন নতুন নিষেধাজ্ঞা সম্পর্কে রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, তার দেশ আমেরিকা ও ডলার ব্যবস্থার ওপর নির্ভরতা কমানোর জন্য কাজ করছে। তিনি আরো বলেন, মার্কিন নতুন নিষেধাজ্ঞার কারণে বিশ্বজুড়ে মার্কিন ডলার আস্থার সংকটে পড়বে।

গতকাল মার্কিন প্রশাসন রাশিয়ার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে। এর একদিন পর ল্যাভরভ এসব কথা বললেন। মার্কিন প্রশাসন রাশিয়ার সামরিক ও গোয়েন্দা বিভাগের ৩৩ জনের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে। ইউক্রেন ও সিরিয়া যুদ্ধে জড়িত থাকার অভিযোগ আনা হয়েছে এসব ব্যক্তির বিরুদ্ধে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here