বল দখলে শুরু থেকেই এসপানিওলের চেয়ে এগিয়ে ছিল রিয়াল মাদ্রিদ। সেই সুযোগে এগিয়ে যাওয়াও সুযোগ পেয়েছিল সান্তিয়াগো বার্নাব্যুর দলটি। কিন্তু করিম বেনজেমা- মার্কো অ্যাসেনসিওদের বারবার এলোমেলো শটে একাধিকবার গোল বঞ্চিত হতে হয় দলটির। তাতে হতাশ হয়ে পড়েন রিয়াল–সমর্থকরা। শেষ পর্যন্ত অবশ্য জিতেছে রিয়ালই। শনিবার রাতে ঘরের মাঠে প্রতিপক্ষের বিপক্ষে ১-০ গোলের কষ্টার্জিত জয় পেয়েছে হুলেন লোপেতেগির শিষ্যরা।

বল দখলের লড়াইয়ে বরং এগিয়েই ছিলো প্রথমার্ধে।  তার পরেও দলটির একমাত্র গোলটি এসেছে খানিক দেরিতে। ৪১ মিনিটে আসেনসিওর গোলে রিয়ালের স্কোর লাইন দাঁড়ায় ১-০।

বিরতির ঠিক চার মিনিট আগে লুকা মদরিচের পাস থেকে বল পেয়ে যান আসেনসিও। তাতেই লা লিগায় এবারের মৌসুমের প্রথম গোলটি তুলে নিতে ভুল করেননি। তবে এই গোলটি উদযাপনে সময় নিতে হয় এই ফরোয়ার্ডকে! ভিএআরে আগে দেখে নেওয়া হয় তিনি অনসাইডে ছিলেন কিনা।

প্রথমার্ধের পর দ্বিতীয়ার্ধেই খোলস ছেড়ে বেরিয়ে আসে অতিথিরা। রিয়াল মাদ্রিদকে বেশ কয়েকবার ভোগান্তিতে ফেলে দেওয়ার চেষ্টা করে এসপানিওল। বিশেষ করে ফরোয়ার্ড ইগলেসিয়াস রিয়াল গোলকিপার কোর্তোয়াকে বোকা বানিয়ে শট নিয়েছিলেন। কিন্তু ভাগ্য সহায় না হওয়াতে শট ক্রসবারে লেগে ফিরে আসে। পরে অবশ্য আর সমতায় ফেরার সুযোগ পায়নি এসপানিওল।

এই জয়ে ৫ ম্যাচে ১৩ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে চলে এসেছে রিয়াল মাদ্রিদ। এক ম্যাচ কম খেলে ১২ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় বার্সেলোনা।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here