এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ নারী ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপের বাছাইপর্বে ‘এফ’ গ্রুপের শেষ ম্যাচে ভিয়েতনামকে সহজেই হারিয়েছে বাংলাদেশ। আর তাতেই গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে এ টুর্নামেন্টের পরবর্তী রাউন্ডে জায়গা পেয়েছে গোলাম রব্বানি ছোটনের শিষ্যরা।

কমলাপুরের বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহী মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে শনিবার ভিয়েতনামকে ২-০ গোলে হারিয়েছে বাংলাদেশ। লাল সবুজদের হয়ে প্রথমার্ধে এগিয়ে যাওয়ার গোলটি করেন তহুরা খাতুন। বিরতির পর প্রতিপক্ষ শিবিরে শেষ পেরেকটি ঠুকে দেন আঁখি খাতুন। তাতেই পরের রাউন্ডে ওঠার আনন্দে মেতে ওঠে লাল-সবুজ প্রতিনিধিরা।

ম্যাচের শুরু থেকেই দারুণ ছন্দময় ফুটবল খেলতে থাকে বাংলাদেশের মেয়েরা। সফলতার মুখ দেখতে পারতো ম্যাচের ৩৭ মিনিটেই। তবে কিন্তু অফসাইটের কারণে গোলটি বাতিল করা হয়।

গোলের জন্য অপেক্ষা করতে হয় ৪৬ মিনিট পর্যন্ত। প্রথমার্ধের যোগ করা সময়ে তহুরার গোলে লিড নিয়ে বিরতিতে যায় লাল-সবুজের মেয়েরা।

বিরতি থেকে ফিরে আক্রমণে ধার বাড়ায় বাংলাদেশ। ম্যাচের ৬৩ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করে বাংলাদেশ। এসময় কর্নার পায় স্বাগতিকরা। কর্নার কিক থেকে অধিনায়ক মারিয়া মান্ডার উড়িয়ে মারা বল পেনাল্টি বক্সের মধ্যে লাফিয়ে উঠে হেড নেন শামসুন্নাহার জুনিয়র। কিন্তু বলটি সেকেন্ড বারে লেগে ফিরে আসে। তার ফিরতি বলে শট নেন আঁখি খাতুন।

এবার ভিয়েতনামের গোলরক্ষকের গায়ে লেগে ফিরে আসে। ফিরতি বলে আবার শট নেন আঁখি। এবার আর কেউ সেটাকে রুখতে পারেনি। বল তার গন্তব্যে চলে যায়। আঁখি খাতুন খুশিতে সেখানেই শুয়ে পড়েন। সতীর্থরা তাকে ঘিরে ধরে উল্লাস করতে থাকে।

এই জয়ের ফলে চার ম্যাচের চারটিতেই জিতে পূর্ণ ১২ পয়েন্ট ও ২৭ গোল গড় নিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়েছে বাংলাদেশ। অন্যদিকে ২৩ গোল গড় ও ৯ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ রানার্স-আপ হয়েছে ভিয়েতনাম। বিদায় নিয়েছে লেবানন, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও বাহরাইন।

‘এফ’ গ্রুপের প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশ ১০-০ গোলে হারায় বাহরাইনকে। দ্বিতীয় ম্যাচে লেবাননের বিপক্ষে বাংলাদেশ জয় পায় ৮-০ ব্যবধানে। আর তৃতীয় ম্যাচে অনুচিং মোগিনির হ্যাটট্রিকে সংযুক্ত আরব আমিরাতকে হারায় ৭-০ ব্যবধানে।

অন্যদিকে ভিয়েতনাম প্রথম ম্যাচে সংযুক্ত আরব আমিরাতকে হারায় ৪-০ ব্যবধানে। পরের ম্যাচে বাহরাইনকে হারায় ১৪-০ গোলে। আর তৃতীয় ম্যাচে লেবাননের বিপক্ষে ভিয়েতনাম জয় পায় ৭-০ ব্যবধানে। কিন্তু শেষ ম্যাচে এসে বাংলাদেশের কাছে হেরে যায় ৩-০ গোলে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here