কদিন আগেই অভিনেতা নানা পাটেকরের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগ আনেন ‘আশিক বানায়া আপনে’ খ্যাত অভিনেত্রী তনুশ্রী দত্ত। এবার এক পরিচালকের বিরুদ্ধে ভয়ংকর অভিযোগ আনলেন তিনি। দীর্ঘদিন ধরেই খবরে ছিলেন না এই অভিনেত্রী।

যখন ফিরলেন একের পর এক বিস্ফোরক বক্তব্য দিয়েই চলেছেন তনুশ্রী। ২০০৫ সালে মুক্তি পায় বিবেক অগ্নিহোত্রী পরিচালিত ‘চকোলেট’ নামে চলচ্চিত্র। আর সেই সিনেমায় সেটেই নাকি তনুশ্রীর সঙ্গে খারাপ আচরণ করেন বিবেক। এই অভিনেত্রীকে পোশাক খুলে নাকি নাচের নির্দেশ দেন। সেসময় দুই সহঅভিনেতা ইরফান খান ও সুনীল শেঠি তনুশ্রীর পাশে এসে দাঁড়ান।

ভারতীয় গণমাধ্যমকে তিনি বলেন- ‘সেদিন আমার শট ছিল না। আমি অন্য এক অভিনেতাকে কিউ দিচ্ছিলাম। ওই অভিনেতা আমার দিকে তাকিয়ে এক্সপ্রেশন দেবেন, সেই কিউ দেয়ার কাজ ছিল আমার। তখন পরিচালক আমাকে পোশাক খুলে নাচতে বলেছিলেন। আমি হতবাক হয়ে গিয়েছিলাম।’ ঘটনার এক পর্যায়ে অভিনেতা ইরফান খান নাকি বলেন- আমার এক্সপ্রেশনের জন্যে তার (তনুশ্রীর) পোশাক খোলার দরকার নেই। এমনিতেই এক্সপ্রেশন দিতে পারবো।

তনুশ্রীর ভাষ্য, এখনও ইরফানের মতো ভালো মানুষ আছে। তাইতো সেদিন এধরনের পরিস্থিতির মধ্যে পড়েও রক্ষা পেয়েছিলাম।

তনুশ্রী আগেই জানিয়েছেন, ২০০৯ তে ‘হর্ন ওকে প্লিজ’ ছবির শুটিংয়ের ফ্লোরেই তাকে চরম হেনস্থা করেছিলেন নানা পাটেকর। ওই ছবিতে নানা পাটেকরই ছিলেন মুখ্য ভূমিকায়। একটি আইটেম নাম্বারে ছিলেন তনুশ্রী।

বাঙালি অভিনেত্রীর অভিযোগ, সেই গানের দৃশ্যেই নানা তার সঙ্গে অস্বস্তিকর ব্যবহার করেন। তার দাবি, অন্তরঙ্গ হওয়ার প্রস্তাবও নাকি দিয়েছিলেন নানা। সে সময় সকলেই এ কথা জানলেও কেউ প্রকাশ্যে তনুশ্রীর পাশে দাঁড়াননি বলে অভিযোগ করেছেন তিনি।

তবে তনুশ্রীর অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন নানা। তিনি বলেছেন, ওই সময় সেটে অন্তত ৫০ থেকে ১০০ জন লোক ছিল। সবার কাছ থেকেই সাহায্য চাইব। পাশাপাশি আইনি দিকও খতিয়ে দেখছি। কী করা যায় আলোচনা চলছে।

যদিও তনুশ্রীর অভিযোগ নিয়ে এখনও পর্যন্ত প্রকাশ্যে মুখ খোলেননি বিবেক।

তনুশ্রী দত্ত হিন্দি ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির পরিচিত মুখ। প্রায় ডজনখানেক হিন্দি সিনেমায় অভিনয় করেছেন। এছাড়া তামিল ও তেলেগু ছবিতেও দেখা গেছে তাকে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here