তিনি বাগদাদের সেরা সুন্দরী। নাম তার তারা ফারেজ। বয়স মাত্র ২২ বছর। আর এই বয়সেই তাকে চলে যেতে হলো পৃথিবী ছেড়ে। তিনটি বুলেটে উড়ে গেছে তার প্রাণপাখি। গত বৃহস্পতিবার (২৭ সেপ্টেম্বর) ইরাকের রাজধানী বাগদাদে গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা গেছেন এই ‘মিস বাগদাদ’।

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম জানায়, তারা ফারেজ নিজেই গাড়ি চালিয়ে যাচ্ছিলেন। আচমকাই তার দিকে গুলি ছোঁড়ে দুর্বৃত্তরা। তিনটি গুলি তার গায়ে বিঁধে। আর এতেই মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন ফারেজ।

তারা ফারেজ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ইনস্টাগ্রামে বেশ সরব ছিলেন। খোলামেলা ছবি ও সমাজের নানা অসংগতি নিয়ে কথা বলতেন তিনি। আর এই কারণেই তাকে নিহত হতে হয়েছে বলে ধারণা তার ভক্ত ও ঘনিষ্ঠজনদের। ধর্মীয় মৌলবাদীরাই তাকে হত্যা করেছে বলে দাবি এই সাহসী ফ্যাশন ব্লগারের পরিবারের।

এদিকে তারা ফারেজের নিহতের ঘটনায় নিন্দা প্রকাশ করেছেন অনেক তারকা। ইরাকের জনপ্রিয় কৌতুক অভিনেতা আহমেদ আল-বশির বলেছেন, জগতের বেশির ভাগ মেয়ের মতো বেঁচে থাকতে চাওয়াকে যারা অন্যায় মনে করে, তারাও এই খুনের পৃষ্ঠপোষক।

শুধু তারা ফারেজই নন, এর দুই দিন আগেই ইরাকের বসরায় গুলিবিদ্ধ হন নারী অধিকারকর্মী সৌদ আল-আলী। দুর্নীতি ও অনিরাপদ পানির বিরুদ্ধে একটি আন্দোলন সংগঠিত করার কারণে হামলার শিকার হতে হয় তাকে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here