এশিয়া কাপ মিশন শেষে শনিবার রাতে দেশে ফিরেছেন টাইগাররা। আর সকালে ঘুম থেকে উঠেই মোটরবাইকে চেপে রাজধানীর অ্যাপোলো হাসপাতালে চলে গেলেন টাইগারদের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। উদ্দেশ্য দলের চালিকাশক্তি সাকিব আল হাসানকে এক নজর দেখা এবং তার বর্তমান অবস্থার খোঁজখবর নেওয়া। হাসপাতালে প্রায় দুই ঘণ্টা সময় কাটান বিশ্বসেরা অলরাউন্ডারের সঙ্গে। দু’জনই আফসোস-অনুশোচনায় পুড়েছেন শিরোপা জিততে না পারায়।

জানা গেছে, দু’জনের আলাপে সাকিবের খেলতে না পারার কথা উঠে এসেছে বারবার। সাকিব থাকলে কখন কি করতেন এমন আফসোস মাখা কথাবার্তাই মাশরাফির মুখে ছিল বেশি।

আরও জানা গেছে, মেহেদি হাসান মিরাজও আজ রোববার সকালে সাকিবকে দেখতে এসেছিলেন। শুধু তাই নয়, গতকাল শনিবার রাতে প্রথমবারের মতো পিতা হওয়া ডানহাতি পেসার তাসকিন আহমেদ এসেছিলেন নিজের টেনশন দূর করতে, প্রিয় বড় ভাইয়ের সঙ্গে খানিক আড্ডা দিতে। এছাড়া মাশরাফি আসার আগে রোববার সাকিবের খোঁজখবর নিতে হাসপাতালে আসেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।

আজ রোববার বিকেলে হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেতে পারেন বাংলাদেশের টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক। তারপর চিকিৎসা চলবে বাসায়। আর মাস তিনেক মাঠের বাইরে থাকতে হবে সাকিবকে।

এ দিকে, নিজের কবজির চিকিৎসা করাতে ইংল্যান্ড যাওয়া তামিম মুঠোফোনে সাকিবের সঙ্গে কথা বলেছেন। জানা গেছে, তামিম ইংল্যান্ডে চিকিৎসা বিষয়ে সাকিবকে ধারণা দিয়েছেন। আর তাই শেষপর্যন্ত সাকিব নিজেই ঠিক করবেন তার পরবর্তী চিকিৎসা কোথায় হবে।

উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় যুক্তরাষ্ট্রের বিমান ধরার কথা ছিল সাকিবের। কিন্তু সেদিন সকালেই চোট পাওয়া হাতে তীব্র ব্যথা অনুভব করেন। আর দেরি না করে ছুটে যান অ্যাপোলো হাসপাতালে। চোট পাওয়া বাঁ হাতের কড়ে আঙুল থেকে সংক্রমণ ধরা পড়ায় অস্ত্রোপচারও করতে হয়েছে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here