ক্ষমতা যেখানে, মানুষের ভিড়ও বাড়তে থাকে সেখানে। ক্ষমতার সামনে মানুষের অনেক কিছু বলার থাকলেও, তা বলা যায় না। বলিউডেও এই ধারা বছরের পর বছর ধরে চলে আসছে। আর এসবের বিরুদ্ধে সাম্প্রতিক সময়ে সরব হয়েছেন অভিনেত্রী তনুশ্রী দত্ত। নানা পাটেকরের মতো বড় মাপের অভিনেতার বিরুদ্ধে মুখ খোলায় প্রথমে সমালোচনার শিকার হলেও, এখন তার পাশে বলিউডের বড় অংশ।

প্রিয়াংকা চোপড়া থেকে ফারহান আখতার তনুশ্রীর পক্ষেই। কঙ্গনা রানাউতও বলেছেন, তনুশ্রীর সাহস আছে। আর এবার তনুশ্রীর পর এবার নিজের অভিজ্ঞতার কথা শেয়ার করলেন নব্বইয়ের সাড়া জাগানো অভিনেত্রী রাবিনা ট্যান্ডন।

গতকাল রবিবার সকালে রাবিনা একটি টুইট করে জানান, কর্মক্ষেত্রে হেনস্থা হওয়া ঠিক কাকে বলে? এই ইন্ডাস্ট্রিতে বহু স্ত্রী/প্রেমিকারা নীরব দর্শক বা প্ররোচকের মতো। তাদের স্বামীরা অন্য অভিনেত্রীদের সঙ্গে ফ্লার্ট করা হয়ে গেলে তাদের ক্যারিয়ার ধ্বংস করেন এবং তারপরে নতুন একজনকে নিশানা করেন। রাবিনার এমন টুইটের পরে  নেটিজেনদের এক দল মনে করছেন এই পোস্টে কি পরোক্ষভাবে অভিনেতা অক্ষয় কুমারকে নিশানা করেছেন?

এক সময়ে অক্ষয়ের সঙ্গে রাবিনাকে নিয়ে বলিউডে কম গুঞ্জন ছিল না। তবে শুধু রাবিনা নয়, অক্ষয়ের তালিকায় একের পরে এক নারীর  নাম জুড়েছে। তারকা পতœী হিসেবে এখানে টুইংকেলের কথাই ইঙ্গিত করেছেন রাবিনা, এমনই মনে করছেন নেটিজেনরা।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here