ঘরের মাঠে জিম্বাবুয়ের সাথে হ্যাটট্রিকসহ একাই ছয় উইকেট তুলে নিয়েছেন লেগ স্পিনার ইমরান তাহির। তবে এদিন আলোটা তাহিরের উপর থেকে নিজের করে নিয়েছেন দুই বছর বাদে দক্ষিণ আফ্রিকা জাতীয় দলের রঙিন জার্সিতে ফেরা দলের বোলিং বিভাগের একসময়কার প্রাণভোমরা ডেল স্টেইন। ফিরেই করেছেন বাজিমাত। তবে বল হাতে নয়, শুরুটা করছেন ব্যাটিং দিয়ে। পরে জ্বলেছেন বোলিংয়েও। পুরস্কার স্বরূপ বাগিয়েছেন ম্যাচ সেরার খেতাব।

নিজের ক্যারিয়ারের ১১৭তম ওয়ানডেতে খেলতে নেমে স্টেইন বুধবার ব্লুমফেনটনে জিম্বাবুয়ের বিরুদ্ধে প্রথম হাফসেঞ্চুরিটা করেছেন। ৯২ বলে করেন দলীয় সর্বোচ্চ ৬০ রান। কঠিন সময়ে ৯ নম্বরে ব্যাট করতে নেমে স্টেইন দারুণ এই ইনিংসটা খেলেন। স্টেইনের ইনিংসের সহায়তায় সাউথ আফ্রিকা প্রথমে ব্যাট করতে নেমে করে ১৯৮ রান।

দুর্বল জিম্বাবুয়ের বিরুদ্ধে মাত্র ৯২ রানে ৬ উইকেট হারিয়েছিল সাউথ আফ্রিকা। একটা সময় মনে হচ্ছিল ১২০-১২৫’র মধ্যেই অলআউট হয়ে যাবেন ডুমিনিরা। এরপরই সবাইকে চমকে দারুণ খেলেন স্টেইন। তার স্টেইনের ব্যাটিং দেখে অধিনায়ক ডুমিনি হাসতে হাসতে বলেন, ‘এবার ওকে সাত নম্বরে খেলাতে হবে।’ টেস্টে অবশ্য এর আগে দুটো হাফ সেঞ্চুরি ছিল স্টেইনের। তবে ওয়ানডেতে তার ব্যাটিং গড় ৭।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে জিম্বাবুয়ে মাত্র ৭৮ রানে, ২৪ ওভারের মধ্যে অলআউট হয়ে যায়। প্রোটিয়া স্পিনার ইমরান তাহির ২৪ রানে ৬ উইকেট নেন। তাহির হ্যাটট্রিক করেন। স্টেইন নেন ২টি উইকেট। জিম্বাবুয়ের মাত্র তিনজন ব্যাটসম্যান দু’অঙ্কের রান করেন। তারা শেষ ৬ উইকেট হারায় ২০ রানে।

এই ম্যাচে জেতায় সিরিজ পকেটে পুড়ল সাউথ আফ্রিকা। তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে ২-০তে এগিয়ে, নিয়মরক্ষার তৃতীয় ওয়ানডেতে শনিবার নামবে দুই দল। সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে কষ্টার্জিত জয় পেয়েছিল প্রোটিয়ারা।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here