সোশ্যাল মিডিয়ায় তাঁর বিরাট আধিপত্য! বাইশ গজ হোক কিংবা বাইশ গজের বাইরে, বিভিন্ন সময় বিভিন্ন কারণে টুইটারে টপ ট্রেন্ডে থাকতে পছন্দ করেন তিনি। এই মুহূর্তে সিংহভাগ লাক্সারি ব্র্যান্ডের পছন্দের তালিকায় প্রথম নামটা তাঁরই। তিনি ভারতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক ‘বিরাট কোহলি দ্য রান-মেশিন’। তবে একটি ঘটনায় সোশ্যাল মিডিয়ায় মুখ পুড়ল ক্যাপ্টেন কোহলির। একটি ব্র্যান্ডেড হাতঘড়ির প্রোমোশনে এসে ট্রোলড হতে হল তাঁকে।

সম্প্রতি নামী সংস্থার হাতঘড়ির প্রোমোশনে এক অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন ভারত অধিনায়ক। ওই একই অনুষ্ঠানে বিরাটের সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন দেশের উদীয়মান টেনিস তারকা কারমান কৌর থান্ডি। অনুষ্ঠানে টেনিস তারকার সঙ্গে ভারতের ক্রিকেট অধিনায়কের একটি ছবি ঘিরেই তোলপাড় সোশ্যাল মিডিয়া।

বিজ্ঞাপনী প্রচারে এসে অনুষ্ঠানের মাঝেই কারমান কৌরের সঙ্গে একটি ফটোশুটে অংশ নেন বিরাট। ঘটনার সূত্রপাত ঠিক সেখানেই। কারমানের উচ্চতা বিরাটের তুলনায় বেশি হওয়ায় করমানকে পোডিয়াম থেকে নামিয়ে নিজে তার পর উঠে দাঁড়ান ভারত অধিনায়ক। তার পর টেনিস তারকার সঙ্গে ফটোশুট করেন বিরাট। উচ্চতায় সমান হতে গিয়ে বিরাটের এই কার্যকলাপ মোটেই ভালচোখে নেয়নি নেটিজেনরা। উদীয়মান খেলোয়াড়ের প্রতি তাঁর এ হেন আচরণ মেনে নিতে পারেননি অনেকেই৷ নিজেকে বড় করার জন্য অন্যকে ছোট করেন কোহলি৷

ঘটনার পর সোশ্যাল মিডিয়ায় ভারত অধিনায়কের উদ্দেশ্যে একের পর এক তীর্যক মন্তব্য উড়ে আসতে থাকে। ‘মহিলারা কী পুরুষদের তুলনায় বেশি উচ্চতাসম্পন্ন হতে পারেন না?’ এমনই প্রশ্ন ছুঁড়ে দিয়ে নেটিজেনদের দাবি, এমন কাজ করে বিরাট তাঁর ঘৃণ্য অহংবোধের পরিচয় দিয়েছেন।

অবস্থা বেগতিক দেখে আসরে নেমে পড়েন বিরাট অনুরাগিরাও। পাল্টা অধিনায়কের সমর্থনে বেশ কিছু যুক্তি ছুঁড়ে দেন তারাও। তারা দাবি করেন ফটোগ্রাফারের নির্দেশেই এমনটা করতে বাধ্য হয়েছেন ভারত অধিনায়ক। কাউকে অসম্মান করা বা নিজের কোন অহংবোধের পরিচয় দিতে এমনটা করেননি বিরাট।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here