ইরান আমেরিকার মধ্যবর্তী নির্বাচনে হস্তক্ষেপ করার চেষ্টা করছে বলে ওয়াশিংটন যে অভিযোগ করেছে তাকে ভিত্তিহীন বলে প্রত্যাখ্যান করেছে তেহরান। ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বাহরাম কাসেমি বলেছেন, অলীক কল্পনা থেকে আমেরিকা এ ধরনের অভিযোগ করেছে।

তিনি আরো বলেন, অন্য দেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ না করা ইরানের পররাষ্ট্রনীতির একটি গুরুত্বপূর্ণ বৈশিষ্ট্য।

বাহরাম কাসেমি বলেন, মার্কিন সরকার আমেরিকার অভ্যন্তরীণ সংকট থেকে জনগণের দৃষ্টি ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার জন্য অন্যান্য দেশের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনছে এবং প্রতিদিনই নতুন নতুন দেশকে নিজের শত্রুতে পরিণত করছে।

ইরানের এই মুখপাত্র বলেন, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প নিজেই দাবি করেছেন তিনি ক্ষমতায় আসার পর ইরান নিজেকে নিয়ে এত বেশি ব্যস্ত হয়ে পড়েছে যে, আঞ্চলিক বিষয়ের দিকেও আর নজর দিতে পারছে না। তাহলে নিজেকে নিয়ে ব্যস্ত থাকা ইরান কীভাবে হাজার হাজার কিলোমিটার দূরে অবস্থিত আমেরিকার নির্বাচনে হস্তক্ষেপ করতে পারে।

আমেরিকার জাতীয় গোয়েন্দা বিভাগ, অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তা মন্ত্রণালয়, বিচার মন্ত্রণালয় ও ফেডারেল পুলিশ বাহিনী- এফবিআই গত শুক্রবার এক যৌথ বিবৃতিতে কোনো ধরনের দলিল-প্রমাণ উপস্থাপন ছাড়াই দাবি করে, ইরান, রাশিয়া ও চীন আমেরিকার আসন্ন মধ্যবর্তী কংগ্রেস নির্বাচনে হস্তক্ষেপ করার চেষ্টা করছে।

নির্বাচনের আগে চালানো জরিপের ফলাফলগুলোতে দেখা যাচ্ছে, এ নির্বাচনে ক্ষমতাসীন রিপাবলিকান দল মারাত্মক ভরাডুবির শিকার হবে। পর্যবেক্ষকরা মনে করছেন, জনগণের সহানুভূতি আদায় করে আসন্ন নির্বাচনের অবশ্যম্ভাবী এ পরাজয় রোধ করার লক্ষ্যে তেহরান, বেইজিং ও মস্কোর বিরুদ্ধে এ অভিযোগ এনেছে ওয়াশিংটন।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here