সৌদি রাজতন্ত্র-বিরোধী সাংবাদিক জামাল খাশোগিকে হত্যা করার আগে একটি সৌদি ঘাতক দল ইস্তাম্বুলের নিকটবর্তী বেলগ্রাদ জঙ্গল ঘুরে এসেছে বলে প্রেসিডেন্ট এরদোগান যে বক্তব্য দিয়েছিলেন তার সমর্থনে ভিডিও ফুটেজ প্রকাশ করেছে তুরস্ক। বুধবার তুর্কি নিরাপত্তা বাহিনী সিসিটিভি ক্যামেরায় ধরা পড়া এ ফুটেজ প্রকাশ করে।

খাশোগিকে হত্যা করার পর তার লাশ গুম করার সম্ভাব্য স্থান হিসেবে সৌদি ঘাতক দলটি ওই জঙ্গলে গিয়েছিল বলে ব্যাপকভাবে ধারণা করছেন তুর্কি গোয়েন্দা কর্মকর্তারা। সম্প্রতি একাধিক তুর্কি নিরাপত্তা দল খাশোগির লাশের সন্ধানে ওই জঙ্গলে অনুসন্ধান চালায়। কিন্তু জঙ্গলটি বিশাল হওয়ার কারণে অনুসন্ধান কাজ পরিত্যক্ত ঘোষণা করা হয়।

ইস্তাম্বুলের প্রধান সরকারি কৌঁসুলির দপ্তর থেকে চালানো তদন্তের অংশ হিসেবে একটি বিশেষ নিরাপত্তা দল ইস্তাম্বুল ও এর আশপাশের ৬২টি পয়েন্টে স্থাপিত ১৩৭টি সিসিটিভি ক্যামেরার দুই হাজার ঘণ্টার ভিডিও ফুটেজ পরীক্ষা করেছে।

ওই নিরাপত্তা দল দেখতে পেয়েছে, কনস্যুলেটের নামে রেজিস্ট্রেশন করা একটি কূটনৈতিক গাড়িতে করে খাশোগিকে হত্যার আগের দিন ১ অক্টোবর সৌদি ঘাতক দলটি বেলগ্রাদ জঙ্গলে যায়। ওদিকে ইস্তাম্বুলের আতাতুর্ক বিমানবন্দরে স্থাপিত আরেকটি ক্যামেরায় ধারণ করা ফুটেজে দেখা যায়, একই দিন ওই বিমানবন্দর দিয়ে জামাল খাশোগি ইস্তাম্বুলে প্রবেশ করেন।

এসব সিসিটিভি ক্যামেরা থেকে নেয়া ভিডিও ফুটেজ থেকে তুর্কি নিরাপত্তা বাহিনী শতভাগ নিশ্চিত হয়েছে যে, পূর্ব পরিকল্পনা এবং সৌদি উচ্চ পর্যায়ের নির্দেশনা নিয়েই জামাল খাশোগিকে হত্যা করা হয়েছে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here