নাইজেরিয়ায় ইমাম হোসেন (আ.)’র শাহাদাতের চেহলাম বার্ষিকী বা আরবাঈনের শোকমিছিলে সেনাবাহিনীর গুলিতে আরও অন্তত ২৭ জন শহীদ হয়েছেন। এ নিয়ে গত এক সপ্তাহে ৩৭ জন শোকার্ত মানুষ শহীদ হলেন। দেশটির ইসলামি আন্দোলনের মুখপাত্র ইব্রাহিম মূসা এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি বলেছেন, গত সোমবার রাজধানীতে শোকমিছিল চলাকালে শোকার্ত জনতার ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ে সেনাবাহিনী। মিছিলকারীরা তাদের নেতা শেইখ যাকযাকির মুক্তির দাবিও জানাচ্ছিলেন। এর আগে গত শনিবার রাজধানীর অদূরের একটি এলাকায় শোকমিছিলে সেনাবাহিনীর হামলায় ১০ জন শহীদ হন।

ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বাহরাম কাসেমি শোকার্ত মানুষের ওপর হামলার নিন্দা জানিয়েছেন। তিনি দেশটির সরকার ও নিরাপত্তা বাহিনীকে ধর্মীয় রীতি-নীতির প্রতি সম্মান দেখানোর আহ্বান জানান। গত কয়েক বছর ধরেই নাইজেরিয়ায় শোকার্ত মানুষের ওপর এ ধরনের বর্বরতা চলছে। এ পর্যন্ত কয়েকশ’ শোকার্ত মানুষ সেনাবাহিনীর হামলায় প্রাণ হারিয়েছেন।

২০১৫ সালে ১৩ ডিসেম্বর ইসলামি আন্দোলনের নেতা শেইখ ইব্রাহিম যাকযাকি ও তার সমর্থকদের ওপর ব্যাপক হামলা চালায় দেশটির সেনাবাহিনী। এ সময় শেইখ যাকযাকি’র তিন ছেলেসহ শত শত মানুষ নিহত হয়। শেইখ যাকযাকি-কে আহত অবস্থায় আটক করা হয়।

দেশটির সুপ্রিম কোর্ট তাকে মুক্তির নির্দেশ দিলেও এখন ওই রায় বাস্তবায়ন করা হয় নি।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here