২০২৬ বিশ্বকাপে খেলবে ৪৮ দল। এ সিদ্ধান্ত বেশ আগেই নিয়েছে ফিফা। কিন্তু ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থাটি এবার চাইছে ২০২২ বিশ্বকাপেও খেলুক ৪৮ দেশ। সেক্ষেত্রে কাতারের সঙ্গে অন্য দেশকে আয়োজক করার প্রয়োজন হলে তার সম্ভাবনাও যাচাই করার ইঙ্গিত দিয়েছে ফিফা প্রধান জিয়ান্নি ইনফান্তিনো।

চলতি বছর বিশ্বকাপে অংশ নিয়েছিল ৩২টি দেশ। ২০২২ বিশ্বকাপেও দলের সংখ্যাটা এতদিন একই থাকার কথা ছিল। কিন্তু এখন সুর পাল্টেছে ফিফার। যদিও পরের বিশ্বকাপে ৪৮ দেশ অংশ নেয়ার ব্যাপারে কোন সিদ্ধান্তে পৌঁছায়নি সংস্থাটি।

এশিয়ান ফুটবলের বার্ষিক সভায় জিয়ান্নি ইনফান্তিনো ২০২২ বিশ্বকাপ নিয়ে বলেন ‘বিশ্বকাপের চূড়ান্ত আসরে ৩২ থেকে বাড়িয়ে ৪৮ দল অংশগ্রহনের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিয়েছি আমরা। আর তা হবে ২০২৬ বিশ্বকাপে। ২০২২ সালেও এমন হবে কি-না? আমরা বিষয়টি দেখছি। যদি তা সম্ভব হয়, কেন নয়?’

কাতার বিশ্বকাপে দল বাড়ালে সেটার ফল নিয়েও ভাবছে ফিফা। এ ব্যাপারে সংস্থাটির সভাপতি বলেন, ‘আমাদের দেখতে হবে এটা সম্ভব কি-না, সফল হওয়া যাবে কি-না। আমরা বিষয়টা নিয়ে আমাদের কাতারি বন্ধুদের সঙ্গে আলোচনা করছি। এই অঞ্চলে আমাদের অন্যান্য বন্ধুদের সঙ্গেও বিষয়টা আলোচনা করছি। আশা করছি, এটা হতে পারে।’

২০২২ বিশ্বকাপের আয়োজক কাতার নির্বাচিত ২০১০ সালে। ঠিক সে সময় থেকেই ২৫ লাখ মানুষের দেশটি ৩২ দলের টুর্নামেন্টের জন্য প্রস্তুতি নিয়ে আসছে। যদিও এরইমধ্যে দেশটি তার বেশ কয়েকটি প্রতিবেশী দেশের সঙ্গে দ্বন্দ্বে জড়িয়েছে। কিন্তু এ ব্যাপারটি মোটের স্বীকার করে না কাতার।

ডিসেম্বরে সংযুক্ত আরব আমিরাতে হবে ফিফা ক্লাব বিশ্বকাপ। সেখানেও এবার দল বাড়ানোর পরিকল্পনার চিন্তা রয়েছে ফিফার। জানিয়েছেন সংস্থাটির সভাপতি ইনফান্তিনো।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here