তিন ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে নিউজিল্যান্ডকে ৬ উইকেটে হারিয়েছে  পাকিস্তান। এই জয়ের ফলে এক ম্যাচ হাতে রেখেই সিরিজ জিতল সরফরাজ আহমেদের দল। এটি পাকিস্তানের টানা ১১তম টি-টোয়েন্টি সিরিজ জয়, আর টানা অষ্টম ম্যাচ জয়।

দুবাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় শুক্রবার রাতে নিউজিল্যান্ডকে ৬ উইকেটে হারিয়েছে পাকিস্তান। আগে ব্যাট করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেটে ১৫৩ রান করে নিউজিল্যান্ড। জবাবে ২ বল আর ৬ উইকেট হাতে রেখে জয় নিশ্চিত করে পাকিস্তান। এরআগে তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম ম্যাচেও কিউইদের সহজেই হারিয়েছিল সরফরাজ আহমেদের দল। তাতে এক ম্যাচ আগেই ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে থেকে সিরিজ জয় নিশ্চিত করল মিকি আর্থারের শিষ্যরা।

শুক্রবার সিরিজ বাঁচাতে নিউজিল্যান্ডের দরকার ছিল জয়। টস জিতে ব্যাটিংয়ের শুরুটাও দারুণ ছিল দলটির। ওপেনিংয়ে গ্লেন ফ্লিপসকে নিয়ে কলিন মানরো (২৮ বলে ৪ চার ও ছয়ে ৪৪) দলীয় স্কোর বোর্ডে যোগ করেন ৫.৫ ওভারে ৫০ রান। কিন্তু এরপর হঠাৎ করেই জ্বলে শাহিন শাহ আফ্রিদি (৩/২০)। সরফরাজের ক্যাচে ফ্লিপসকে ফিরিয়ে এ পেসার ভাঙেন বিপজ্জনক জুটি। কিছুক্ষণ পরই মানরো স্টাম্পিংয়ের ফাঁদে ফেলেন হাফিজ। বেশিক্ষণ কলিন ডি গ্র্যান্ডহোমকে টিকতে দেননি ইমাদ ওয়াসিম। বাঁহাতি এ স্পিনার ১০ম ওভারের ৪র্থ বলে শোয়েব মালিকের সীমানার দড়ির কাছে ক্যাচে পরিণত করে ফেরান তাকে। তবে এক প্রান্ত আগলে পাকিস্তানকে চোখ রাঙানি দিচ্ছিলেন নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। ৩৪ বলে ২ চারে ৩৭ রান করা এ ডানহাতি রস টেইলর ও করি অ্যান্ডারসনের সঙ্গে চেষ্টা করেছিলেন চমৎকার জুটি গড়ে দলকে এগিয়ে নিতে। কিন্তু তার পরিকল্পনায় বাঁধা হয়ে দাঁড়ান শাহিন শাহ আফ্রিদি। ১৮তম ওভারের প্রথম বলেই ফখর জামানের ক্যাচে ফিরিয়ে দেন তাকে। শেষ দিকে অবশ্য অ্যান্ডারসন ঝড়ে (২৫ বলে ৪ চার ও ২ ছয়ে ৪৪*) চ্যালেঞ্জিং স্কোর দাঁড় করাতে সক্ষম হয়েছিল নিউজিল্যান্ড।

জবাব দিতে নেমে দলে ফেরা ফখর জামান (১৫ বলে ৩ চার ও ১ ছয়ে ২৪) ও বাবর আজমের (৪১ বলে ৪ চারে ৪০) ব্যাটে দারুণ শুরু পায় পাকিস্তান। ৪.৪ ওভারেই তারা দলীয় স্কোর বোর্ডে এনে দেন ৪০ রান। তাতে ভর করে মাঝে দারুণ খেলেন আসিফ আলি। ডানহাতি এ ব্যাটসম্যান ৩৪ বলে ১ চার ও ২ ছয়ে ৩৮ রানের সময় উপযোগি ইনিংস উপহার দেন। শেষ দিকে ঝড় তোলেন মোহাম্মদ হাফিজ। তার ২১ বলে ১ চার ২ ছয়ে অপরাজিত ৩৪ রানে ভর করেই সহজেই জয় নিশ্চিত করে পাকিস্তান। আর তাতে টানা ১১তম সিরিজ জয়ের আনন্দে মাতেন সরফরাজ আহমেদরা।

নিউজিল্যান্ডের হয়ে অ্যাডাম মিলনে ২.৪ ওভারে ২৫ রানে ২ উইকেট নিয়েছেন। এছাড়া কলিন মানরো ও টিম সাউদি পকেটে পুরেছেন ১টি করে উইকেট।

বল হাতে ২০ রানে ৩ উইকেট নিয়ে সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার জিতেছেন পাক পেসার শাহিন শাহ আফ্রিদি।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here