২০১৩ সালে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ ক্রিকেটে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবের হয়ে এল্টন চিগুম্বুরা এক ওভারে করেছিলেন ৩৯ রান! বোলার ছিলেন আবাহনীর আলাউদ্দিন বাবু। লিস্ট এ ক্রিকেটে এক ওভারে সবচেয়ে খরুচে বোলার এতদিন ছিলেন আলাউদ্দিন বাবু। তাঁকে দুইয়ে নামিয়ে লজ্জার রেকর্ডে শীর্ষে এখন দক্ষিণ আফ্রিকার উইলেম লুডিক।

উইলেম লুডিকের ৪র্থ লিস্ট-এ ম্যাচের শেষ ওভারে তান্ডব চালান নর্দান ডিস্ট্রিক্টসের দুই ব্যাটসম্যান জো কার্টার ও ব্রেট হ্যাম্পটন। হ্যাম্পটন লুডিকের করা প্রথম বলে চার মেরে শুরু করেন। পরের দুই বল ছিল নো বল। দুটি বলেই ছক্কা হাঁকান হ্যাম্পটন। দ্বিতীয় বৈধ বলেও আসে ছক্কা। এরপর সিঙ্গেল নিয়ে জো কার্টারকে দেন তিনি। কার্টার বাকি থাকা তিন বলে হাঁকান তিন ছক্কা। ৪+৭+৭+৬+১+৬+৬+৬, মোট ৪৩ রান আসে ওভার থেকে!

লিস্ট ক্রিকেটে এক ওভারে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ডঃ

৪৩– উইলেম লুডিক (বোলার)– জো কার্টার ও ব্রেট হ্যাম্পটন (ব্যাটসম্যান)– নর্দার্ন ডিস্ট্রিক্টস বনাম সেন্ট্রাল ডিস্ট্রিক্টস, ২০১৮-১৯

৩৯– আলাউদ্দিন বাবু (বোলার)– এল্টন চিগুম্বরা (ব্যাটসম্যান)– শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব বনাম আবাহনী, ২০১৩-১৪

৩৭– এডি লি (বোলার)– জেপি ডুমিনি (ব্যাটসম্যান)– কেপ কোবরাস বনাম নাইটস, ২০১৭-১৮

৩৬– ড্যান ভ্যান বুঙ্গে (বোলার)– হার্শেল গিবস (ব্যাটসম্যান)– দক্ষিণ আফ্রিকা বনাম নেদারল্যান্ডস, ২০০৬-০৭

৩৫– ডার্কা রবি তেজা (বোলার)– রাইফি গোমেজ (ব্যাটসম্যান)– কেরালা বনাম হায়দ্রাবাদ, ২০০৯-১০

৭৭ বলে ১০২ রান করে অপরাজিত থাকেন জো কার্টার। ৬৬ বলে ৯৫ রান করেন ব্রেট হ্যাম্পটন। নর্দার্ন ডিস্ট্রিক্টস ৫০ ওভারে তোলে ৭ উইকেটে ৩১৩ রান। প্রথম ৯ ওভারে ৪২ রান দেওয়া উইলেম লুডিকের ১০ ওভার শেষে বোলিং ফিগার হয় এমন- ১০-০-৮৫-১!

দক্ষিণ আফ্রিকার অনূর্ধ্ব-১৯ দলে খেলা উইলেম লুডিক একজন অলরাউন্ডার। ৩ প্রথম শ্রেণির ম্যাচ খেলে ১ টি করে সেঞ্চুরি ও ফিফটিতে করেছেন ২২৫ রান, নিয়েছেন ৬ উইকেট। লিস্ট এ ক্যারিয়ারে ৪ ম্যাচে আছে ৩৩ রান, ৫ উইকেট। বাংলাদেশে এসে খেলে গেছেন ২০১৬ অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here