বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী জামিনে মুক্তি পেয়েছেন।  নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের সময় নওমী নামের এক ব্যক্তির সঙ্গে ‘ফোনালাপ’-এর ঘটনায় করা মামলায় আজ সোমবার সকাল সাড়ে সাতটার দিকে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে তিনি মুক্তি পান।

চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারের জ্যেষ্ঠ তত্ত্বাবধায়ক প্রশান্ত কুমার বণিক এ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, উচ্চ আদালত থেকে গতকাল রোববার জামিননামা আসে কারাগারে। এটি যাচাই–বাছাই করে আমীর খসরুকে মুক্তি দেয়া হয়।

নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের সময় নওমী নামের এক ব্যক্তির সঙ্গে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরীর ‘ফোনালাপ’-এর ঘটনায় চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক জাকারিয়া দস্তগীর গেল ৪ আগস্ট কোতোয়ালি থানায় আইসিটি আইনে মামলা করেন। ২১ অক্টোবর এই মামলায় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরীকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন আদালত।

আমীর খসরুর বিরুদ্ধে ওই ফোনালাপে আন্দোলনে উসকানি দেয়ার অভিযোগ আনা হয়। তবে বিএনপির পক্ষ থেকে এ অভিযোগ অস্বীকার করা হয়।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here