যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যে ভয়াবহ দাবানলে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৩১য়ে দাঁড়িয়েছে। এখনও নিখোঁজ রয়েছেন আরো ১১০ জন। ফলে নিহতের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলে উদ্ধারকর্মীদের আশঙ্কা।

দাবানলে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে রাজ্যের উত্তরাঞ্চলীয় শহর প্যারাডাইজ। এখানেই মারা গেছে ২৯ জন। বাকি দুজন মারা গেছে মালিবু নামের এক রিসোর্টে। আগুন থেকে বাাঁচতে সরিয়ে নেয়া হয়েছে ক্যালিফোর্নিয়া রাজ্যের আড়াই লাখের বেশি মানুষকে।

আগুনে পুড়ে অঙ্গার হয়ে গেছে গোটা শহর। ক্যালিফোর্নিয়ার বন ও আগুন নির্বাপক বিভাগের মুখপাত্র স্কট ম্যাক্লিন বলেন, শহরটি ধ্বংস হয়ে গেছে, সবকিছু শেষ। কিছুই আর বাকি নেই।

এবারের এই আগুনকে ১৯৩৩ সালে অনুষ্ঠিত ক্যালিয়োর্নিয়ার সবচেয়ে ভয়াবহ দাবানলের সঙ্গে তুলনা করা হচ্ছে। এতদিন পর্যন্ত লস এঞ্জলসের গ্রিফিথ পার্কের দাবানলটিকেই রাজ্যের সবচেয়ে ভয়াবহতম দুর্যোগ বলে মনে করা হতো।

প্রচণ্ড বাতাসের কারণে শক্তিশালী হয়ে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে আগুন। এ কারণে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রতি এই দাবানলকে প্রধান দুর্যোগ হিসেবে ঘোষনা করার দাবি জানিয়েছেন ক্যালিফোর্নিয়ার গভর্নর জেরি ব্রাউন। এর ফলে জরুরি ভিত্তিতে দাবানলে ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য তহবিল সংগ্রহ করা সম্ভব হবে।

ট্রাম্প এই রাজ্যের তহবিল হ্রাসের হুমকি দেয়ার একদিন পর তিনি এ দাবি জানালেন।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here