পর্যবেক্ষকদের কারণে আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন পেছাতে হবে- এমন যুক্তি অবাস্তব বলে মন্তব্য করেছেন, আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

আজ মঙ্গলবার রাজধানীর ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির কার্যালয়ে দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন।

তিনি আরও জানান, সংসদীয় বোর্ডের তিন সদস্য অসুস্থ থাকায় তাদের প্রতিনিধিত্ব করার জন্য তিনজনকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। এ তিনজন হলেন, ড. আবদুর রাজ্জাক, অবসরপ্রাপ্ত কর্নেল ফারুক খান ও রমেশ চন্দ্র সেন।

এর আগে, গত রবিবার আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের কমিশনকে সব দলের সঙ্গে আলোচনা করে নির্বাচন পেছানোর পরামর্শ দেন।

তিনি বলেন, ‘নির্বাচন পেছালে আওয়ামী লীগের আপত্তি নেই, তবে নির্বাচন কমিশন যেন সব দলের সঙ্গে আলোচনা করে এই সিদ্ধান্ত নেয়।’

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক আরও বলেন, ‘নির্বাচন কমিশনের তফসিল ঘোষণাকে আমরা স্বাগত জানিয়েছি। এখন নির্বাচন পেছাবে কী পেছাবে না সেটা নির্বাচন কমিশনের ব্যাপার। নির্বাচনের শিডিউল সংক্রান্ত সব বিষয় নির্বাচন কমিশনের এখতিয়ারে।’

এদিকে, আজ মঙ্গলবার সকালে, রিটার্নিং কর্মকর্তাদের উদ্দেশে দেয়া বক্তব্যে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদা জানান, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তারিখ পেছানোর আর কোনও সুযোগ নেই।’

এ সময়, গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের পরিবেশ সৃষ্টি করতে রিটার্নিং কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার। এছাড়াও নির্বাচন কমিশন যেন আস্থাহীনতার পরিচয় না দেয় এবং ব্যক্তিগত ব্যর্থতার দায়ে যেন কমিশন প্রশ্নবিদ্ধ না হয় সে বিষয়েও, সজাগ থাকতে রির্টানিং কর্মকর্তাদের প্রতি নির্দেশ দেন সিইসি।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here