ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব জানিয়েছেন, আগামী ৬ মাসের মধ্যে ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে আরেকটি নতুন পানিপথ তৈরি সম্পন্ন হবে। এ পথে চলাচল করবে জাহাজ। এ জন্য ভারতীয় অংশে গোমতী নদী ড্রেজিং করে বাংলাদেশের ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ বন্দরের সঙ্গে ত্রিপুরার সোনামুড়াকে যুক্ত করা হবে। সোনামুড়া থেকে মেঘনা নদীতে আশুগঞ্জ বন্দরের দূরত্ব প্রায় ৬০ কিলোমিটার।

গতকাল (মঙ্গলবার) তিনি এই পানিপথ তৈরির ঘোষণা দিয়েছেন বলে ভারতের অনলাইন দ্য টেলিগ্রাফ পত্রিকায় খবর প্রকাশিত হয়েছে।

‘দিওয়ালি মিলন’ নামের একটি অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে বিপ্লব কুমার দেব বলেন, খুব শিগগিরই ভারতীয় অংশে গোমতী নদীতে ড্রেজিং বা খনন কাজ শুরু করবে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার। ওই এলাকায় সম্প্রতি সফর করেছেন নৌচলাচল বিষয়ক সচিব। তিনি আমাদেরকে আশ্বস্ত করেছেন যে, এই কাজ সম্পন্ন হবে ৬ মাসের মধ্যে। নতুন এই পানিপথের কাজ সম্পন্ন হলে উৎপাদিত পণ্য সরাসরি চলে যাবে সোনামুড়া সাব ডিভিশনাল শহরে।

ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী আরো বলেন, ২০২০ সালের মধ্যে আগরতলা থেকে বাংলাদেশের আখাউড়া পর্যন্ত ১৫ কিলোমিটার রেলপথের কাজ শেষ হবে। এর ফলে ভারতের উত্তর পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্যগুলো বাংলাদেশ হয়ে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর সঙ্গে সংযুক্ত হবে।

স্মার্ট সিটির বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বিপ্লব কুমার দেব বলেন, এটা হলো প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির স্বপ্ন। তিনি তার পদাঙ্ক অনুসরণ করছেন। আগামী চার বছরের মধ্যে রাজ্য সরকার সমস্ত সুযোগ সুবিধা সম্বলিত অনেক আধুনিক শহর গড়ে তুলবে। টি টাওয়ার, আইটি টাওয়ার, পুলিশ টাওয়ারের মতো অনেক টাওয়ার ও বড় বড় হাসপাতাল নির্মাণ করা হবে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here