আমেরিকার ক্যালিফোর্নিয়া অঙ্গরাজ্যের ভয়াবহতম দাবানলে নিহতের সংখ্যা ৫৬-তে পৌঁছেছে। এর মধ্যদিয়ে এ অঙ্গরাজ্যের দাবানলের ইতিহাসে মৃতের সব রেকর্ড ছাড়িয়ে গেল।

আজ (বৃহস্পতিবার) পর্যন্ত যেসব খবর পাওয়া গেছে তাতে এখনো ১০০’র বেশি মানুষ নিখোঁজ রয়েছে যাদের বেশিরভাগেরই বয়স ৬৫ বছরের বেশি।

আনা ডিজে নামে এক নারী জানান, আগুনের গতি অত্যন্ত বেশি। দাবানলে তার ৬৬ বছর বয়সী বাবা মারা গেছেন। তিনি জানান, দাবানল থেকে বাঁচতে তারা খুব অল্প সময় পেয়েছেন; ওই সময়ের মধ্যে তারা ঘর-বাড়ি ছাড়ার চেষ্টা করেন। কিন্তু গোছানো জিনিসপত্র আনতে ঘরের ভেতরে গেলে তা ধসে পড়ে এবং তারা বাবা মারা যান। আনা বলেন, আগুনের হাত থেকে বাঁচতে তিনি তার কুকুরকে নিয়ে প্রতিবেশীদের পুকুরে রাত কাটিয়েছেন। তিনি বলেন, “আমি ধারণা করতে পারি নি আগুন এতটা তীব্র গতিতে ধেয়ে আসবে।” তিনি বলেন, আগুনে টায়ার গলে যাওয়ায় তিনি গাড়ি নিয়ে কোথাও যেতে পারেন নি।

ক্যালিফোর্নিয়ার দাবানলে এ পর্যন্ত প্রায় আট হাজার ঘরবাড়ি ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ধ্বংস হয়েছে। এছাড়া, লাখ লাখ একর ভূমি পুড়ে গেছে। এর আগে ১৯৩৩ সালে লসঅ্যাঞ্জেলেসের গ্রিফিত পার্কে ভয়াবহ দাবানলে ২৯ জন নিহত হয়েছিল। চলমান দাবানলের ক্ষয়ক্ষতির জন্য প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প স্থানীয় কর্তৃপক্ষের অব্যস্থাপনাকে দায়ী করেছেন।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here