সৌদি আরবের ভিন্ন মতাবলম্বী সাংবাদিক জামাল খাশোগি হত্যাকাণ্ডের ঘটনা থেকে বিশ্ব জনমত ভিন্ন দিকে নেয়া এবং সৌদি যুবরাজ মুহাম্মাদ বিন সালমানকে বিপদমুক্ত করার পরিকল্পনা থেকে ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় ইহুদিবাদী ইসরাইল নতুন করে আগ্রাসন শুরু করে থাকতে পারে। খাশোগি হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় বিন সালমানকেই মূলত দায়ী করা হচ্ছে।

ব্রিটেনভিত্তিক ‘মিডল ইস্ট আই’ নামে একটি প্রভাবশালী অনলাইন এ খবর দিয়েছে। গতকাল (বুধবার) পত্রিকাটি এক প্রতিবেদনে বলেছে, খাশোগি হত্যাকাণ্ডের ঘটনা নিয়ে তুরস্ক থেকে যেসব গুরুত্বপূর্ণ ও গোপনীয় তথ্য ফাঁস হয়ে যাচ্ছে তা ঠেকানোর জন্য বিন সালমান একটি টাস্কফোর্স গঠন করেছেন। ওই টাস্কফোর্স ইসরাইলের যুদ্ধবাজ প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুকে গাজার ওপর আগ্রাসন চাপিয়ে দেয়ার বিষয়ে রাজি করিয়েছে যাতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের দৃষ্টি খাশোগি হত্যাকাণ্ডের ঘটনা থেকে গাজার দিকে চলে যায়।

টাস্কফোর্সে রয়েছেন সৌদি রাজকীয় আদালতের কর্মকর্তারা, পররাষ্ট্র ও প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা এবং গোয়েন্দা সংস্থার লোকজন। তারাই যুবরাজকে পরামর্শ দিয়েছেন যে, গাজায় যুদ্ধ শুরু হলে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের চিন্তা খাশোগি থেকে গাজার দিকে ঘুরে যাবে।

চলতি সপ্তাহের গোড়ার দিকে ইসরাইলের জঙ্গিবিমান হঠাৎ করেই গাজার ওপর হামলা শুরু করে। এছাড়া, একটি বিশেষ বাহিনী পাঠিয়ে গাজায় ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাসের একজন কমান্ডারসহ কয়েকজন সদস্যকে হত্যা করেছে ইহুদিবাদী সেনারা। এরপর থেকে দু পক্ষের মধ্যে দফায় দফায় হামলা পাল্টা হামলার ঘটনা ঘটেছে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here