অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত একটি পাবলিক পরীক্ষা নেওয়ার পক্ষে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়। রোববার সকালে রাজধানীর ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজে পিএসসি পরীক্ষা কেন্দ্র পরির্দশন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান।

এর আগে, সকাল সাড়ে ১০টা থেকে শুরু হয়েছে প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা। যা আগামী ২৬ নভেম্বর পর্যন্ত চলবে।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, সরকার সিদ্ধান্ত নিলে শিক্ষা নীতির আলোকে প্রাথমিক পর্যায়ে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত দু’টি পরীক্ষার বদলে একটি পরীক্ষা নেওয়া হবে।

মন্ত্রী বলেন, শিক্ষানীতিতে বলা হয়েছে, প্রাথমিক শিক্ষা কার্যক্রম হবে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত। কিন্তু এখন পর্যন্ত সেটা বাস্তবায়ন হয়নি। যখন বাস্তবায়ন হবে, তখন একটি পরীক্ষা হবে না কি দুটি হবে—সেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

মোস্তাফিজুর রহমান আরো বলেন, যাদের পরামর্শ নিয়ে সমাপনী-ইবতেদায়ি পরীক্ষা শুরু করা হয়েছিল তারা বর্তমানে এ পরীক্ষা আয়োজন নিয়ে ভিন্ন মত প্রকাশ করছে। পঞ্চম শ্রেণিতে পাবলিক পরীক্ষা আয়োজন করা সরকারের সিদ্ধান্ত, তাই এ পরীক্ষা আয়োজন করা হচ্ছে। তবে আমরাও একটি পরীক্ষা আয়োজনের পক্ষে।

তিনি বলেন, মানসম্মত শিক্ষা বাস্তবায়ন করতে এবার প্রশ্ন পদ্ধতিতে কিছুটা পরিবর্তন আনা হয়েছে। বহুনির্বাচনি প্রশ্ন তুলে দিয়ে রচনামূলক ও এক কথায় উত্তর যুক্ত করা হয়েছে। পাঠ্যপুস্তক পড়ে শিক্ষার্থী বুঝতে পারছে কিনা তা মূল্যায়ন করতে নতুন পদ্ধতি অনুসরণ করা হচ্ছে। সারাদেশে সুষ্ঠুভাবে সমাপনী ও ইবতেদায়ি পরীক্ষা শুরু হয়েছে। প্রশ্নফাঁস বা কোথাও কোন বিশৃঙ্খলার ঘটনা শোনা যায়নি।

এবার পিএসসিতে হঠাৎ করে এমসিকিউ বাদ দেওয়া প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, বছরের শুরুতেই এই ঘোষণা দেওয়া হয়েছিল। এ ছাড়া বুঝে শুনে চিন্তাভাবনা করেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, যত ঝঞ্ঝাই হোক না কেন, আগামী ১ জানুয়ারি শিক্ষার্থীদের নতুন বই দেওয়া হবে। আগেও আগুন সন্ত্রাসের মধ্যে বই পৌঁছে দেওয়া হয়েছে।

প্রসঙ্গত, এবছর প্রাথমিক সমাপনীতে ২৭ লাখ ৭৭ হাজার ২৭০ জন এবং ইবতেদায়িতে ৩ লাখ ১৭ হাজার ৮৫৩ জন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করছে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here