মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা সিআইএ সৌদি আরবের রাজতন্ত্র বিরোধী সাংবাদিক জামাল খাশোগির হত্যাকাণ্ডের জন্য সরাসরি যুবরাজ মোহাম্মাদ বিন সালমানকে দায়ী করলেও প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এখনো যুবরাজকে বাঁচিয়ে দেয়ার চেষ্টা করছেন।

তিনি ফক্স নিউজকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, সৌদি যুবরাজের আশপাশের লোকজন খাশোগিকে হত্যা করেছে। কিন্তু তারপরও তিনি মোহাম্মাদ বিন সালমানকে এ ঘটনায় দায়ী করতে নারাজ।

সাক্ষাৎকারে একইসঙ্গে ট্রাম্প বলেন, তার কাছে খাশোগি হত্যাকাণ্ডের অডিও টেপ থাকলেও তা তিনি শুনে দেখবেন না। তিনি ওই অডিও টেপকে ‘ভয়ঙ্কর ও ঘৃণ্য’ বলে অভিহিত করেন।

তুরস্কের ইস্তাম্বুলে সৌদি কনস্যুলেটের ভেতর ব্যক্তিগত কাগজপত্র সংগ্রহ করতে গিয়ে গত ২ অক্টোবর নৃশংস হত্যাকাণ্ডের শিকার হন খাশোগি। এরপর নানা নাটকীয়তার জের ধরে মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা সিআইএ’র প্রধান তুরস্ক সফরে যান।

তুর্কি কর্তৃপক্ষ তার হাতে খাশোগি হত্যাকাণ্ডের সময় তার সঙ্গে ঘাতকদের উত্তপ্ত বাক্য বিনিময়সহ পুরো ঘটনার অডিও রেকর্ডিং তুলে দেন। ওই রেকর্ডিং পর্যালোচনাসহ অন্যান্য তথ্য-উপাত্ত পর্যালোচনা করে সিআইএ সম্প্রতি খাশোগি হত্যাকাণ্ডের মূল হোতা হিসেবে সৌদি যুবরাজ মোহাম্মাদ বিন সালমানকে চিহ্নিত করে।

কিন্তু হোয়াইট হাউজ সিআইএ’র সঙ্গে ভিন্নমত প্রকাশ করে বলেছে, শিগগিরই মার্কিন প্রেসিডেন্টের দপ্তর থেকে খাশোগির হত্যাকারীদের নাম প্রকাশ করা হবে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here