বেশ কিছুদিন ধরেই স্টিভেন স্মিথদের শাস্তি কমানো নিয়ে কথা হচ্ছিল। অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটারদের সংগঠন থেকে বোর্ডকে আনুষ্ঠানিক চিঠিও দেয়া হয়েছিল। এর প্রেক্ষিতে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনারও ইঙ্গিত দিয়েছিল। তখন থেকেই ধারনা করা হচ্ছিল নিষেধাজ্ঞা থেকে হয়তো মুক্তি পেতে যাচ্ছেন ৩ ক্রিকেটার।

সোমবার তিন ক্রিকেটারদের শাস্তির বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করতে বৈঠকে বসেছিল ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (সিএ)। কিন্তু বৈঠক শেষে ক্রিকেটারদের জন্য হতাশার কথাই শোনানো হল। সিএ সাফ জানিয়ে দিয়েছে, বহালই থাকছে স্মিথদের নিষেধাজ্ঞা। মার্চে দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে গিয়ে বল ট্যাম্পারিং কেলেঙ্কারিতে জড়ায় অস্ট্রেলিয়া।

এ ঘটনায় দোষী সাব্যস্ত হলে সেই সময়ের অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ ও সহ অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নারকে সবধরনের আস্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে ১২ মাসের জন্য নিষিদ্ধ করা হয়। আর অন্য ক্রিকেটার ক্যামেরন ব্যানক্রফট পান ৯ মাসের নিষেধাজ্ঞা। আগামী বছরের মার্চে শেষ হবে স্মিথ ও ওয়ার্নারের নিষেধাজ্ঞা।

আর চলতি বছরের ডিসেম্বওে শেষ হবে ব্যানক্রফটের নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ। তারপর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরতে তাদের আর কোন বাধা থাকবে না। কিন্তু এর আগে তাদের শাস্তি কমিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরাতে রাজি নয় অস্ট্রেলিয়া।

গতকাল বৈঠক শেষে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার অন্তর্র্বতীকালীন চেয়ারম্যান আর্ল এডিংস বলেন, আমরা মনে করি শাস্তি কামানো নিয়ে চলমান এই আলোচনা তিন (স্মিথ, ওয়ার্নার ও ব্যানক্রফট) খেলোয়াড় ও অস্ট্রেলিয়ার পুরুষ ক্রিকেট দলের ওপর চাপ সৃষ্টি করছে। কিন্তু ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া নিষেধাজ্ঞা সংশোধনের কোন দাবি আর বিবেচনা করতে চায় না। আমরা জানি এই সিদ্ধান্ত এসিএকে হতাশ করবে। কিন্তু তাদের আবেদনের জন্য ধন্যবাদ জানাই। ক্রিকেটের স্বার্থে তাদের সাথে আমরা সুসম্পর্ক তৈরিতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here