মাত্রই চোট থেকে ফিরেছেন সাকিব আল হাসান। অনুশীলন করছেন গেল শনিবার থেকে। তবে তাকে অধিনায়ক করেই ঘরের মাঠে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজের দল ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ। কিন্তু ১৪ সদস্যের দলে থাকলেও মূল একাদশে সাকিবকে দেখতে পাওয়া যাবে কি-না তা নিয়ে তিনি নিজেও নিশ্চিত নন। জানিয়েছেন, হাতের অবস্থা ‘পুরোপুরি’ ভালো হলেও ম্যাচ শুরুর আগে শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত অপেক্ষা করতে চান তিনি।

বৃহস্পতিবার চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে সিরিজের প্রথম টেস্টে নামছে স্বাগতিক বাংলাদেশ  ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ। তার আগের দিন সংবাদ সম্মেলনে সাকিব এই ম্যাচে খেলা নিয়ে তার অনিশ্চয়তার কথা তুলে ধরেছেন।

বাঁ হাতের চোট সাকিবকে ছিটকে দিয়েছিল এশিয়া কাপের আসর থেকে। খেলতে পারেননি জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজেও। তবে আশার বাণী শুনিয়ে বিশ্ব সেরা অলরাউন্ডার সাকিব জানিয়েছেন, তার হাত নিয়ে আর কোনো দুশ্চিন্তা নেই। বর্তমান পরিস্থিতি ‘পুরোপুরি’ ভালো হলেও যেহেতু পাঁচ দিনের ম্যাচ তাই সংশয়ে আছেন তিনি।

মাত্র চার দিনের অনুশীলনে পাঁচ দিনের টেস্ট ম্যাচ খেলাটা যে ঝুঁকিপূর্ণ, তা কারও অজানা নয়। সাকিবের কথায় সেটাই ফুটে উঠেছে, ‘পাঁচ দিন খেলাটা কতটা চ্যালেঞ্জিং হবে সেটা আমরা সবাই জানি। যদি ম্যাচটা পাঁচ দিন যায়। এ কারণে এখনও একটু হলেও দ্বিধা তৈরি হচ্ছে যে ওই অবস্থাতে আমি এসেছি কি না। কারণ আমি আজকের দিনসহ মাত্র চার সেশন অনুশীলন করেছি। এর মধ্যে দুইটা সেশন ছিল ঐচ্ছিক। দেখা যাক। খেলছি কি-না সেটা জানতে শেষ পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে।’

শেষ পর্যন্ত সাকিব না খেলতে পারলে সেটা বাংলাদেশের জন্য হবে বড় ধাক্কা। তবে নিজেদের মাঠে চেনা কন্ডিশনে ক্যারিবিয়ানদের হারানোর মন্ত্র নিয়েই মাঠে নামবে টাইগাররা। বিশেষ করে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্টে দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়ানোর পর দলের আত্মবিশ্বাসটা টইটুম্বুরই থাকার কথা!

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here