আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কেন্দ্র পাহারার নামে বিএনপি দেশে গৃহযুদ্ধের উস্কানি দিচ্ছে।’

আজ বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় রাজধানীর র‌্যাডিসন ব্লু হোটেলে এসথেটিক ডারমাটোলজিস্টদের আন্তর্জাতিক সেমিনারে তি‌নি এ মন্তব্য করেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘জাতীয় এক্যফ্রন্ট ও বিএনপি নেতারা বিভিন্ন জায়গায় আক্রমণাত্মক মন্তব্য করে দেশকে গৃহযুদ্ধের দিকে ঠেলে দিচ্ছেন। তারা বলছেন, নির্বাচনের দিন প্রতিটি কেন্দ্রে ৩শ’থেকে ৪শ’ নেতা-কর্মী অবস্থান করবে। আমরা যদি একইভাবে আমাদের নেতা-কর্মী কেন্দ্রে অবস্থান নিতে বলি, তাহলে কি গৃহযুদ্ধ হবে না?’

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বিএনপি নেতারা অবিরাম ‘অ্যাগ্রেসিভ’ (আক্রমণাত্নক) মুডে কথা-বার্তা বলছেন, অবিরাম তারা আক্রমণাত্নক ভাষায় কথা বলছেন। তারা গৃহযুদ্ধের হুমকি দিচ্ছেন।’

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘আজকে দেশের জনগণ একটা শান্তিপূর্ণ নির্বাচন চায়। তারা অবাধ সুষ্ঠু ও স্বচ্ছ নির্বাচন চায়। বিএনপি নেতারা আক্রমণাত্নক ভাষা ব্যবহার করে নির্বাচনের সুন্দর পরিবেশটাকে নষ্ট করছেন। কেন তারা এমন করছেন?’

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ড. কামাল হোসেনসহ ঐক্যফ্রন্টের অন্যান্য নেতাদের এক কানাকড়িরও দাম নেই। বিএনপি তাদের ব্যবহার করছে। সবকিছু নিয়ন্ত্রণ হচ্ছে লন্ডন থেকে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here