প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, তাঁর সরকার পুনরায় নির্বাচিত হলে চট্টগ্রাম ও রাজশাহীতে আধুনিক ট্যানারি ও স্বতন্ত্র চামড়া শিল্প অঞ্চল গড়ে তোলা হবে।

সরকার ইতোমধ্যে শিল্পাঞ্চলের উপযোগী স্থান নির্ধারণে কর্মকর্তাদের নির্দেশ দিয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, তাঁর দল পুনঃনির্বাচিত হলে চামড়া শিল্পাঞ্চল ও ট্যানারি নির্মিত হবে।

প্রধানমন্ত্রী আজ বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ‘বাংলাদেশ লেদার ফুটওয়্যার এন্ড লেদার গুডস ইন্টারন্যাশনাল সোর্সিং শো’ উদ্বোধনকালে এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, বর্তমানে আমরা বিশ্বের বিভিন্ন দেশগুলোর সঙ্গে সম্পর্কোন্নয়নে অর্থনৈতিক কূটনীতিকে প্রাধান্য দিচ্ছি। এর আলোকে বিভিন্ন দেশে থাকা বাংলাদেশি কূটনীতিকদের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে সে সব দেশের পণ্যের চাহিদা বিষয়ে তথ্য দেওয়ার জন্য। যাতে আমরা রফতানি বৃদ্ধি করতে পারি।

তিনি বলেন, ওইসব দেশের ব্যবসায়ী ও জনপ্রতিনিধিদের সঙ্গে কথা বলে বাংলাদেশে বিনিয়োগে আগ্রহী করার জন্য কাজ করতেও বাংলাদেশি কূটনীতিকদের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা এক্সপোর্ট বাস্কেট বাড়ানোর প্রতি জোর দিয়েছি। বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মানুষের চাহিদার ওপর জোর দিয়ে আমাদের রফতানি বাণিজ্য নির্ধারণের পাশাপাশি কর্মসংস্থান ও আয় বাড়ানোর পথ সুগম হবে। এর জন্য সরকার সব ধরনের সুযোগ সৃষ্টি করে দিতে আন্তরিক।

তিনি বলেন, শুধু রফতানি করলে হবে না, বিদেশে এবং দেশে বাজার বাড়াতে হবে। যুগের সঙ্গে তাল মিলিয়ে পণ্য তৈরি করতে হবে। এ ক্ষেত্রে প্রাইভেট সেক্টর এগিয়ে আসলে ভালো হয়। যুব সমাজকে ট্রেনিংয়ের মাধ্যমে দক্ষ করে গড়ে তুলতে হবে। তাদেরকে কাজে লাগাতে হবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, রফতানি ও উৎপাদন আগের তুলনায় অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে। কৃষির সঙ্গে সঙ্গে আমরা শিল্পায়নও করছি। কৃষিকে আধুনিকীকরণ এবং যান্ত্রিকীকরণ করার জন্য আমরা বিভিন্ন জেলা উপজেলায় যন্ত্র সরবরাহ করছি।

তিনি বলেন, রফতানি বাড়াতে হলে কোন দেশে কী চাহিদা রয়েছে তা খুঁজে বের করতে হবে। তাহলে বাংলাদেশ লাভবান হবে। আপনারা যারা ব্যবসায়ী রয়েছেন তারাও অনেক টাকার মালিক হতে পারবেন। সরকার হিসেবে আমাদের দায়িত্ব আপনাদেরকে সুযোগ সৃষ্টি করে দেয়া। বাজার খুঁজে দেওয়া।

প্রধানমন্ত্রী এ সময় আধুনিক পদ্ধতিতে চামড়ার সর্বোচ্চ ব্যবহার নিশ্চিতে চামড়া শিল্প মালিকদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। তিনি ব্যবসায়ীদের চামড়াজাত পণ্যের জনপ্রিয় ব্র্যান্ডগুলোকে বাংলাদেশে শিল্প স্থাপনে আগ্রহী করতে কাজ করারও পরামর্শ দেন।

বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব শুভাশিষ বসু, এফবিসিসিআই প্রেসিডেন্ট শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন। এতে লেদার গুডস এন্ড ফুটওয়্যার ম্যানুফ্যাকচারাস এন্ড এক্সপোটার্স এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ সভাপতি সফিউল ইসলাম স্বাগত বক্তৃতা করেন।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here