দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথম ম্যাচের তৃতীয় দিন সকালের সেশনে দ্বিতীয় ইনিংসে ১২৫ রানে গুটিয়ে যায় স্বাগতিক বাংলাদেশ। তাতে সফরকারী ওয়েস্ট ইন্ডিজকে জিততে হলে করতে হবে ২০৪ রান। ক্যারিবীয়ানদের হয়ে ইনিংস শুরু করেছেন ক্রেইগ ব্রাথওয়েইট এবং কিয়েরন পাওয়েল।

প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের দেয়া ৩২৪ রানের বিপরীতে দ্বিতীয় দিনের শেষ সেশনে ব্যাট করতে নেমে ২৪৬ রানে থেমে যায় সফরকারীদের ইনিংস। দ্বিতীয় ইনিংসে ৭৮ রানে এগিয়ে থেকে ব্যাটিংয়ে নেমে দ্বিতীয় দিন শেষে পাঁচ উইকেটে ৫৫ রান তোলে স্বাগতিকরা। তৃতীয় দিন সকালে সবকটি উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশ ৩৫.৫ ওভারে তোলে ১২৫ রান।

শনিবার (২৪ নভেম্বর) সকাল সাড়ে ৯টায় চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে টেস্টের তৃতীয় দিনে ব্যাটিংয়ে নামে বাংলাদেশ। আগের দিনের ৫ উইকেটে ৫৫ রান নিয়ে ব্যাট করতে নামেন দ্বিতীয় দিনে অপরাজিত থাকা মিরাজ (০) ও মুশফিকুর রহিম (১১)। তবে তাদের জুটি মোটেও সুবিধা করতে পারেনি।

তৃতীয় দিন দলীয় স্কোর বোর্ডে ১৪ রান যোগ করতেই বড় ধরণের ধাক্কা খায় বাংলাদেশ। মিস্টার ডিপেন্ডেবল খ্যাত মুশফিকুর রহিম ব্যক্তিগত ১৯ রানে গ্যাব্রিয়েলের বলে পরিষ্কার বোল্ড হয়ে সাজঘরে ফিরে যান।

ফলে বাংলাদেশের স্কোর দাঁড়ায় ৬ উইকেটে ৬৯ রান। লিড ১৪৭ রান।দলের এমন বেহাল অবস্থায় ক্রিজে আসেন মাহমুদ উল্লাহ রিয়াদ। মিরাজকে সঙ্গে নিয়ে এগুতে থাকেন তিনি।

কিন্তু আবারও ছন্দপতন দলীয় ১০৬ রানের মাথায় বিশুর বলে সাজঘরে ফিরে যান মিরাজ। ১৮ রান করেন তিনি। দলের হাল ধরতে নাঈম হাসান আসলেও বেশিক্ষণ টিকে থাকতে পারেননি তিনি। মাত্র পাঁচ রান করে আউট হয়ে যান।

এরপর দলের ১২৩ রানের মাথায় রিয়াদ ও ১২৫ রানের মাথায় তাইজুল ইসলাম সাজঘরে ফিরে যান। রিয়াদ ৩১ ও তাইজুল ১ রান করেন।

এর আগে প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের ৩২৪ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে ২৪৬ রানে গুটিয়ে যায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

ফলে ৭৮ রানের লিড পায় টাইগাররা। সফরকারীদের সামনে বড় টার্গেট ছুঁড়ে দিতে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নামে বাংলাদেশ। কিন্তু মোটেই সুবিধা করতে পারেনি।

দ্বিতীয় ইনিংসে বাংলাদেশও পেয়েছে ক্যারিবিয়ান স্পিনের আঁচ। মাত্র ১৭ ওভার ব্যাট করে হারায় ৫ উইকেট। রান তুলে মাত্র ৫৫।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here