ক্রিমিয়া উপকূল থেকে ইউক্রেনের তিনটি নৌজাহাজ আটকের ঘটনা সমর্থন করে রাশিয়া বলেছে, আন্তর্জাতিক ও অভ্যন্তরীণ আইন মেনেই এসব জাহাজ জব্দ করা হয়েছে।

রুশ প্রেসিডেন্টের আবাসিক দপ্তর ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ বলেছেন, ইউক্রেনের নৌবাহিনীর জাহাজগুলো ‘রাশিয়ার পানিসীমায় আগ্রাসন চালিয়েছিল।’ রাশিয়ার নিরাপত্তা বাহিনীর সতর্কবার্তা উপেক্ষা করে ইউক্রেনের জাহাজগুলো অবৈধভাবে রাশিয়ার পানিসীমায় অনুপ্রবেশ করার পর এগুলোকে আটক করা হয় বলে তিনি জানান।

ক্রেমলিনের মুখপাত্র বলেন, “রাশিয়ার সীমান্তরক্ষী বাহিনী কঠোরভাবে আন্তর্জাতিক ও অভ্যন্তরীণ আইন অনুসরণ করেছে। তারা রুশ ফেডারেশনের পানিসীমায় বিদেশি সামরিক জাহাজের অনুপ্রবেশের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েছে।”

রাশিয়ার পানিসীমা লঙ্ঘনের দায়ে ইউক্রেনের জাহাজগুলোর বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা রুজু করা হয়েছে বলেও জানান তিনি। তবে কোথায় কীভাবে মামলা হয়েছে সে সম্পর্কে বিস্তারিত কিছু তিনি জানাননি।

এর আগে গতকাল ক্রিমিয়া উপদ্বীপে ইউক্রেনের নৌবাহিনীর তিনটি জাহাজ জব্দ করে রাশিয়া। এ ঘটনায় ইউক্রেনের ছয় কর্মকর্তা আহত হয়ন বলে কিয়েভ দাবি করেছে। ফলে দুই দেশের মধ্যে উত্তেজনা চরমে পৌঁছেছে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here