প্যারিস সেইন্ট জার্মেইতে (পিএসজি) অসুখী নেইমার আবারো ফিরতে চাইছেন বার্সেলোনায়। অপরদিকে ম্যাচে ঠিকমতো সুযোগ না পেয়ে দল ছাড়তে চাইছেন উসমান দেম্বেলে। দুটি গুঞ্জনই বেশ জোরালো ফুটবল পাড়ায়। তবে গোলডটকম জানিয়েছে নেইমারকে ফিরে পেতে দেম্বেলেকে ছাড়তে রাজী হয়েছে স্প্যানিশ চ্যাম্পিয়নরা।

শুরু থেকে না বলে আসা বার্সেলোনা যে নেইমারেকে ফেরাতে আগ্রহী তা বেশ কদিন আগেই ইঙ্গিত দিয়েছেন ক্লাবের স্পোর্টিং ডিরেক্টর পেপ সেগুরা। তবে গোলডটকমের মতে, নেইমারকে ফিরিয়ে আনার চুক্তিতেই দেম্বেলেকে রাখতে চাইছে বার্সেলোনা। এ দুই খেলোয়াড়ের বিনিময় করতে চাইছে দলটি। তাতে পিএসজির কতোটা আগ্রহ আছে তা এখনও জানা যায়নি। তবে আলোচনা অনেক দূর এগিয়েছে বলেই জানিয়েছে গণমাধ্যমটি।

এদিকে দেম্বেলেকে কিনতে মুখিয়ে আছে ইংলিশ ক্লাব লিভারপুল। ১৯৯০ সালের পর থেকে শিরোপাবঞ্চিত দলটি নিজেদের ঐতিহ্য ফেরাতে বিশ্বকাপ জয়ী এ তারকার জন্য উঠেপড়েই লেগেছে। এ ফরাসীকে চাইছে আরেক ইংলিশ ক্লাব আর্সেনালও। শেষ পর্যন্ত যদি পিএসজি বিনিময়ে চুক্তিতে না যায় তাহলে ইংলিশ কোন ক্লাবই হতে পারে দেম্বেলের ঠিকানা। আর তা থেকে প্রাপ্য অর্থ ব্যবহার করা হবে নেইমারকে কিনতে।

আর বার্সেলোনায়ও খুব একটা ভালো সময় যাচ্ছে না দেম্বেলের। আশানুরূপ পারফরম্যান্স তো করতে পারছেনই না, সঙ্গে কোচ এরনাস্তো ভালভারদের সঙ্গে চলছে ঝামেলা। কদিন আগে রিয়াল বেটিসের সঙ্গে ৩-৪ গোলে হারের ম্যাচে ডাগআউটে ছিলেন না তিনি। জানা গেছে ক্যাম্পের নিয়মকানুন ঠিক ভাবে না মানায় সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছিল তাকে। যদিও বিষয়টি অস্বীকার করেছেন দেম্বেলের এজেন্ট। তবে আগের ম্যাচে অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদের বিপক্ষে তার গোলেই হার এড়াতে পেরেছে স্প্যানিশ চ্যাম্পিয়নরা।

২০১৭ সালে ২২২ মিলিয়ন ইউরোর বিনিময়ে বার্সেলোনা থেকে পিএসজিতে নাম লেখান নেইমার। এরপর তড়িঘড়ি করেই বুরুশিয়া ডর্টমুণ্ড থেকে মোট ১৪৫ মিলিয়ন ইউরো খরচ করে উসমান দেম্বেলেকে উড়িয়ে আনে বার্সা। তবে নেইমারের শূন্যতা পূরণ করতে পারেননি এ ফরাসী। অন্যদিকে মেসির ছায়া থেকে মুক্তি পেতে পিএসজিতে যোগ দিলেও ১৯ বছর তরুণ কিলিয়ান এমবাপের ছায়ায় ঢেকে যাচ্ছেন বলেই আবার কাতালান ক্লাবে ফিরতে চাইছেন এ ব্রাজিলিয়ান। এখন দেখার বিষয় শেষ পর্যন্ত জল কোন দিকে গড়ায়।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here