লা লিগায় সময়টা ভাল না গেলেও চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ছন্দে রিয়াল মাদ্রিদ। প্রথম পর্বে ইতালিয়ান ক্লাব রোমাকে ৩-০ গোলে হারিয়েছিল মাদ্রিদের ক্লাবটি। আর ফিরতি পর্বের ম্যাচেও নিজেদের ফর্ম ধরে রেখেছে স্প্যানিশ জায়ান্টরা।

মঙ্গলবার রাতে রোমার মাঠে ‘জি’ গ্রুপে ২-০ গোলে জিতেছে সান্তিয়াগো সোলারির দল। আগের ম্যাচে চেক রিপাবলিকের ভিক্টোরিয়া প্লাজেনের কাছে রুশ ক্লাব সিএসকেএ মস্কো হেরে যাওয়ায় জি-গ্রুপ থেকে নকআউট পর্ব নিশ্চিত হয়ে যায় রোমা ও রিয়ালের। তবে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন কে হবে সেটা জানা বাকি ছিল।

রোমার মাঠে মঙ্গলবার রাতে ‘জি’ গ্রুপে জয় পেলেও ভালো খেলতে পারেনি রিয়াল। দারুণ সব গোছানো আক্রমণ করেও স্ট্রাইকারের ব্যর্থতায় গোল পায়নি রোমা। তবে গোল করার মতো প্রথম সুযোগটা পেয়েছিল তারাই। ২০ মিনিটে লুকা মদ্রিচের শট রোমা গোলরক্ষক রবিন ওলসেন ফিরিয়ে না দিলে এগিয়ে যেতে পারতো তখনই।

৩৩ মিনিটে গোলের দারুণ সুযোগ পেয়েছিল রোমা। গোল মুখে প্রথম দফায় ফেদেরিকো ফাজিওর শট ফিরিয়ে দেন ড্যানি কারবাহাল। ফিরতি বলে জটলায় একেবারে ফাঁকায় শট নেওয়ার সুযোগ পান পেত্রিক চিক। কিন্তু তার শট দারুণ দক্ষতায় ফিরিয়ে দেন গোলরক্ষক থিবো কর্তুয়া। পরের মিনিটে আলেকজান্ডার কোলারভের দূরপাল্লার দারুণ শট অল্পের জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়।

ম্যাচের যোগ করা সময়ে দিনের সবচেয়ে সহজ সুযোগটি পেয়েছিল রোমা। গোলমুখে কেবারে ফাঁকায় বল পেয়েছিলেন চেঙ্গিজ আন্দার। গোলরক্ষকও ছিলেন অপর প্রান্তে। প্রয়োজন ছিল আলতো টোকায় বল জালে জরানো। কিন্তু তা করতে গিয়ে অবিশ্বাস্যভাবে বারের উপর দিয়ে উড়িয়ে মেরে দলকে হতাশ করেন এ তুর্কি।

উল্টো দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে ডিফেন্ডার ফাজিওর মারাত্মক ভুলে একেবারের অরক্ষিত জায়গায় বল পেয়ে যান গ্যারেথ বেল। আর সে ভুলে লক্ষ্যভেদ করতে কোন ভুল করেননি এ ওয়েলস তারকা। তিন মিনিট পর গোল শোধের দারুণ সুযোগ পেয়েছিলেন নিকোলো দানিয়োলো। কিন্তু তার শট ফিরিয়ে দেন কারবাহাল।

৫৮ মিনিটে জাস্টিন ক্লুইভার্টের শট দারুণ দক্ষতায় ফিরিয়ে দেন রিয়াল গোলরক্ষক কর্তুয়া। পাল্টা আক্রমণে উল্টো ব্যবধান দ্বিগুণ করে রিয়াল। ডান প্রান্ত থেকে বেলের ক্রসে হেড নিয়ে ভাসকিয়েসকে পাস দেন করিম বেনজেমা। আলতো টোকায় বল জালে জড়ান তিনি।

পাঁচ মিনিট পর ফাঁকায় বল পেয়েছিলেন বেনজেমা। তার শট দারুণ দক্ষতায় ফিরিয়ে দেন রোমা গোলরক্ষক ৬৭ মিনিটে কর্তুয়ার ভুলে গোল করার ভালো সুযোগ পেয়েছিলেন আন্দার। তবে তা কাজে লাগাতে পারেনি দলটি। এরপরও গোল শোধের বেশ কিছু সুযোগ ছিল রোমার। কিন্তু কাজে লাগাতে না পারলে হার নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয় তাদের।

পাঁচ ম্যাচে চার জয়ে রিয়ালের সংগ্রহ ১২ পয়েন্ট। ৩ পয়েন্ট কম নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছে রোমা। ৪ পয়েন্ট নিয়ে আছে তৃতীয় স্থানে। সমান পয়েন্ট হলেও মুখোমুখি লড়াইয়ে পিছিয়ে চতুর্থ স্থানে আছে সিএসকেএ মস্কো।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here