সৌম্যের বিদায়ের পর ব্যাটিংয়ে নেমে দারুণ খেলছিলেন মুমিনুল হক। রান তোলার দিকেই বেশি মনযোগি ছিলেন। অন্যদিকে দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে সাদমানের সঙ্গেও বোঝাপড়াও ভাল ছিল তার।

কিন্তু লাঞ্চের ঠিক আগের ওভারে কেমার রোচের পঞ্চম বলে অহেতুক শর্ট খেলতে গিয়েই এ বাঁহাতি পড়লেন বিপদে। বলতে গেলে ঢাকা টেস্টের প্রথম দিনে শুক্রবার লাঞ্চ বিরতে তার উইকেটটিই বাংলাদেশের জন্য হয়ে থাকল আক্ষেপ।

ঢাকা টেস্টের প্রথম দিনের লাঞ্চ বিরতি চলছে। তার আগে বাংলাদেশের সংগ্রহ করেছে ৩৩.৩ ওভারে ২ উইকেটে  ৮৭ রান। উইকেটে রয়েছেন সাদমান ইসলাম ৩৬ রানে।

এই ম্যাচের মধ্যদিয়ে টেস্টে অভিষেক হলো তরুণ ব্যাটসম্যান সাদমান ইসলামের। বিশ্রামে রাখা হয়েছে ওপেনার ইমরুল কায়েসকে। বাদ পড়েছেন পেসার মোস্তাফিজুর রহমান, দলে এসেছেন লিটন দাস। এই প্রথম কোনো পেসার ছাড়া একাদশ সাজিয়েছে টাইগাররা।

চট্টগ্রাম টেস্টে বাংলাদেশ জিতেছিল ৬৪ রানের ব্যবধানে। নিজেদের খেলা সবশেষ ৫ টেস্টে টানা দুটিতেই জিতেছে বাংলাদেশ আর টানা তিনটিতেই হেরেছে ক্যারিবীয়ানরা। ২০০৯ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে দুই ম্যাচের সিরিজে স্বাগতিকদের হোয়াইটওয়াশ করেছিল বাংলাদেশ। ২০০৯ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে প্রথম টেস্টে চোট পেয়েছিলেন অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। তার বদলে নেতৃত্বভার পেয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ধবলধোলাই করেছিলেন সাকিব। ৯ বছর পর ওয়েস্ট ইন্ডিজকে আবারও ধবলধোলাইয়ের সুযোগ পেয়েছে বাংলাদেশ।

শুক্রবার (৩০ নভেম্বর) সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টে মিরপুরে স্বাগতিকদের মুখোমুখি হয় সফরকারী ওয়েস্ট ইন্ডিজ। বাংলাদেশ সময় সাড়ে নয়টায় শুরু হয় ম্যাচটি। ম্যাচটি সরাসরি সম্প্রচার করছে গাজী টিভি। এছাড়া, ম্যাচটি সরাসরি দেখতে পাচ্ছেন র‌্যাবিটহোলবিডিতে।

বাংলাদেশ একাদশ:

সাদমান ইসলাম, সৌম্য সরকার, মুমিনুল হক, মোহাম্মদ মিঠুন, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম, লিটন দাস, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মেহেদি হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম এবং নাঈম হাসান।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ একাদশ:

ক্রেইগ ব্রাথওয়েইট, কাইরন পাওয়েল, শাই হোপ, শিমরন হেটমেয়ার, সুনীল অ্যামব্রিস, রোস্টন চেজ, শেন ডরউইচ, শিমরন লুইস, দেবেন্দ্র বিশু, কেমার রোচ এবং জোমেল ওয়ারিকান।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here