ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে দ্বিতীয় টেস্টের প্রথম দিন শেষে বাংলাদেশের দলীয় সংগ্রহ দাঁড়ালো ২৫৯/৫। ৬৯ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটিতে মাঠ ছাড়েন অধিনায়ক সাকিব আল হাসান (৫৫*) ও মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ (৩১*)। দুই ম্যাচ সিরিজে ১-০ তে এগিয়ে টাইগাররা। আজ মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন অধিনায়ক সাকিব। টেস্ট অভিষেকেই দায়িত্বশীল ইনিংস উপহার দেন তরুণ বাঁহাতি ওপেনার সাদমান ইসলাম। সেঞ্চুরি থেকে ২৪ রান দূরে থাকতে আউট হন তিনি। দলীয় ১৫১ রানের মাথায় ভাঙে সাদমান ও মোহাম্মদ মিঠুনের তৃতীয় উইকেট জুটি। ৫৭তম ওভারে লেগস্পিনার দেবেন্দ্র বিশুর বলের লাইন মিস করে বোল্ড হন মিঠুন (২৯)।

দলীয় ৮৭ রানে দুই উইকেট হারানোর পর ৬৪ রানের জুটি গড়েন দুইজন। ১০ রান যোগ হতেই বিশুর পরের ওভারে এলবিডব্লিউর শিকার সাদমান। তার ১৯৯ বলে ৭৬ রানের ধৈর্য্যশীল ইনিংসে ছিল ৬টি চারের মার। ১৪৭ বল মোকাবেলায় অর্ধশতক পূরণ করেন ২৩ বছর বয়সী সাদমান। দ্বিতীয় সেশন শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ দাঁড়ায় ৬৩ ওভারে ১৭৫/৪। চা বিরতির পর সাকিব ও মুশফিকুর রহিমের জুটি বেশিদূর এগোয়নি।

৬৮তম ওভারে দলীয় ১৯০ রানের মাথায় শেরমন লুইসের বলে বোল্ড জন মুশফিক (১৪)। সাদমান ও সৌম্য সরকারের ওপেনিং জুটিতে আসে ৪২ রান। ১৬তম ওভারে দলীয় ৪২ রানের মাথায় আউট হন সৌম্য (১৯)। অফস্পিনার রোস্টন চেজের বলে স্লিপে শাই হোপের তালুবন্দি হন তিনি। দ্বিতীয় উইকেটে মুমিনুল হকের সঙ্গে আরও ৪৫ রান যোগ করেন সাদমান। টানা তৃতীয় টেস্টে সেঞ্চুরির হাতছানি নিয়ে নামা মুমিনুল ব্যক্তিগত ২৯ রানে বিদায় নেন। প্রথম সেশনের শেষ ওভারে আউট হন তিনি। পেসার কেমার রোচের বলে লং-অনে রোস্টন চেজের ক্যাচবন্দি হন দারুণ ফর্মে থাকা এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান। মুমিনুলের বিদায়ে ৩৩.৫ ওভারে ৮৭/২ সংগ্রহ নিয়ে মধ্যাহ্ন বিরতিতে যায় বাংলাদেশ। চট্টগ্রামে দুই ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্টে ৬৪ রানের জয়ে লিড নেয় বাংলাদেশ। ঢাকা টেস্ট ড্র করলেই ওয়েস্ট ইন্ডিজকে পেছনে ফেলে টেস্ট র‌্যাঙ্কিংয়ের ৮-এ উঠবে টাইগাররা।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here