বলিউডে সবে শুরু হয়েছে তাঁর যাত্রা। ক্যারিয়ারের শুরুতেই বেশ বড় ব্যানারে কাজ করার সুযোগ পেয়েছেন। তিনি সারা আলি খান। ‘নেপোটিজ়ম’ শব্দটা কীভাবে প্রভাব ফেলেছে তাঁর জীবনে? এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের করা এই প্রশ্নে সারা বললেন, “নিজেকে স্টারকিড ভাবাটা প্রয়োজনীয় নয়, বরং আমি নিজেকে আমার মায়ের সন্তান হিসেবেই ভাবতে চাই।”

সারার মা অমৃতা সিংয়ের সঙ্গে সইফের ডিভোর্স হয় ২০০৪ সালে। এরপর থেকেই সারা আর তাঁর ভাই থাকেন অমৃতার সঙ্গেই। মাকে নিয়ে বেশ স্পর্শকাতর সারা। বললেন, “আমি আমার মায়ের অংশ। মা নিজের জীবনটাকে খুব সাধারণ আর বাস্তবসম্মতভাবে কাটিয়েছেন। সেই কোয়ালিটিগুলো আমার আর ভাইয়ের মধ্যেও মিলেমিশে গেছে।”

অভিনেত্রী অমৃতাও। সারা বললেন, “শুধু অভিনেত্রী বলেই নয়, অভিনেত্রী হওয়ার আগে থেকেই জীবনটাকে খুব হালকা চালে আর সৎভাবে কাটিয়েছে মা। আমি ওঁর সঙ্গে ২৩ বছর আছি। আশা করি এই যাপনের কিছুটা প্রভাব আমার উপরেও পড়েছে।”

‘কেদারানাথ’ আর ‘সিম্বা’-র ট্রেলার ইতিমধ্যেই মন কেড়েছে দর্শকের। সারা কেমন অভিনেত্রী, সেটা তো জানা যাবে ছবি মুক্তির পরই। তবে, সারার মা অমৃতা মনে করেন, “অভিনয়টা সারার জন্মগত কোয়ালিটি।”

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here