শীতল যুদ্ধের সময় স্বাক্ষরিত আইএনএফ চুক্তি থেকে আমেরিকা বেরিয়ে গেলে রাশিয়া ওই চুক্তিতে নিষিদ্ধ ক্ষেপণাস্ত্র উৎপাদন শুরু করবে বলে হুমকি দিয়েছে প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। রাশিয়া এরইমধ্যে আইএনএফ চুক্তি লঙ্ঘন করেছে বলে মঙ্গলবার মার্কিন নেতৃত্বাধীন সামরিক জোট- ন্যাটো অভিযোগ করার পর পুতিন এই হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করলেন।

পুতিন বলেন, তার দেশের বিরুদ্ধে ন্যাটোর এ অভিযোগ চুক্তিটি থেকে আমেরিকার বেরিয়ে যাওয়ার ইঙ্গিত বহন করে।

স্নায়ুযুদ্ধ চলার সময় ১৯৮৭ সালে তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট রোনাল্ড রিগ্যান ও রুশ নেতা মিখাইল গর্বাচেভের মধ্যে আইএনএফ চুক্তি সই হয়েছিল।

চুক্তির আওতায় ভূমি থেকে আকাশে নিক্ষেপযোগ্য ৫০০ হতে সাড়ে পাঁচ হাজার কিলোমিটার পাল্লার পরমাণুবাহী ক্ষেপণাস্ত্র তৈরি নিষিদ্ধ করা হয়। পরবর্তীতে দুই দেশ প্রায় ২,৭০০ মধ্যম পাল্লার পরমাণুবাহী ক্ষেপণাস্ত্র ধ্বংস করে।

১৯৮৭ সালে আইএনএফ চুক্তিতে সইয়ের পর করমর্দন করছেন মিখাইল গর্ভচেভ (বামে) ও রোনাল্ড রিগ্যান

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুতিন টেলিভিশনে প্রচারিত এক ভাষণে আরো বলেছেন, বিশ্বের বহু দেশ আইএনএফ চুক্তিতে নিষিদ্ধ হওয়া সমরাস্ত্র তৈরি করছে।  তিনি বলেন, “এখন মনে হচ্ছে মার্কিন কর্মকর্তারা এই সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছেন যে, তাদেরও এ ধরনে অস্ত্র থাকা প্রয়োজন।”

পুতিন স্পষ্ট করে বলেন, “সেক্ষেত্রে আমাদের প্রতিক্রিয়া কি হবে? উত্তর সোজা- আমরাও একই কাজ করব।”

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here