একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার জন্য পটুয়াখালী-৩ আসন থেকে গোলাম মাওলা রনি এবং বগুড়া-৭ আসন থেকে মোর্শেদ মিল্টনসহ কয়েকজন বিএনপি প্রার্থীদের মনোনয়ন বৈধ ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর নির্বাচন ভবনে প্রাথমিক শুনানির সময় তাদের নাম প্রার্থীতা বাতিলকৃত তালিকা থেকে খারিজ করে দিয়ে মনোনয়ন বৈধ ঘোষণা দেয় কমিশনের আপিল কর্তৃপক্ষ।

রনি ও মিল্টন ছাড়াও প্রার্থীতা ফিরে পেয়েছেন ঢাকা-১ আসনের খন্দকার আবু আশফাক, ঢাকা-২০ এর তমিজ উদ্দিন এবং কিশোরগঞ্জ -২ আসনের মেজর (অব.) আখতারুজ্জামান। এর ফলে তারা আগামী জাতীয় নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন।

বগুড়া-৭ আসনে বিএনপির একমাত্র প্রার্থী মোর্শেদ মিল্টন।

এর আগে, বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে ইসি শুনানি শুরু করে এবং তাৎক্ষণিকভাবে কয়েকটি আবেদন নিষ্পত্তি করে।

বৃহস্পতিবার আরও ১৬০ টি আবেদন নিষ্পত্তি করা হবে। এছাড়া শুক্রবার ১৫০ টি এবং বাকি ২৩৩টি আবেদন শনিবার নিষ্পত্তি করা হবে।

আগামী জাতীয় নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার ও গ্রহণের বিষয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তার সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ করে গতকাল বুধবার পর্যন্ত নির্বাচন কমিশনে মোট ৫৪৩ টি আবেদন জমা হয়েছে।

আসন্ন ১১তম সংসদ নির্বাচনে দেশের ৩০০ আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার জন্য জমা দেয়া মনোনয়নপত্রগুলোর মধ্যে গত রবিবার মোট দুই হাজার ২৭৯টি গ্রহণ এবং ৭৮৬টি বাতিল করে দেন রিটার্নিং কর্মকর্তারা।

নির্বাচনের তফসিল অনুযায়ী, প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন ৯ ডিসেম্বর। আর প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের মাঝে নির্বাচনী প্রতীক বরাদ্দ করা হবে ১০ ডিসেম্বর। প্রতীক পাওয়ার পর প্রার্থীরা তাদের নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করতে পারবেন।

আগামী ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here