জম্মু-কাশ্মির সীমান্তে পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর গুলিবর্ষণের ফলে ভারতীয় এক সেনা ও আধাসামরিক বাহিনী বিএসএফের এক জওয়ান নিহত হয়েছেন। দু’টি আলাদা ঘটনায় নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর কুপওয়াড়া ও রাজৌরি জেলায় জওয়ানরা নিহত হন।

গতকাল (বৃহস্পতিবার) জম্মু-কাশ্মিরের কুপওয়াড়া জেলার মছিল সেক্টরে পাকিস্তানি সেনাদের গুলিবর্ষণে ভারতীয় এক সেনাসদস্য নিহত হয়েছেন। সেনাবাহিনীর কর্মকর্তা কর্নেল রাজেশ কালিয়া বলেন, ‘পাকিস্তানি সেনারা জম্মু-কাশ্মিরের কুপওয়াড়া জেলার মছিল সেক্টরে বিনাপ্ররোচনায় যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন করেছে। সেনাবাহিনী দ্রুত পাকিস্তানি বাহিনীর গোলাগুলির কঠোর জবাব দিয়েছে। উভয়পক্ষের গুলি বিনিময়ের মধ্যে ঘটনায় এক সেনাসদস্যের মৃত্যু হয়েছে।’

নিহত সেনাবাহিনীর রাইফেলম্যান রাজেশ কুমারের বাড়ি উত্তর প্রদেশের এটায়।

প্রসঙ্গত, কাশ্মির উপত্যকায় নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর ২৪ ঘণ্টার মধ্যে এটি ছিল দ্বিতীয়বার যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘনের ঘটনা। উরি সেক্টরে গত বুধবার পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর গুলিবর্ষণের ফলে ভারতীয় এক সেনাসদস্য আহত হয়েছিলেন।

অন্যদিকে, গতকাল সন্ধ্যায় রাজৌরি জেলার সুন্দেরবানি সেক্টরে নিয়ন্ত্রণরেখার ওপার থেকে স্নাইপার হামলায় বিএসএফের ১২৬ ব্যাটেলিয়ানের এক জওয়ান নিহত ও অন্য একজন আহত হয়েছেন। কর্মকর্তারা বলছেন, ওই ঘটনায় কনস্টেবল পরানজিৎ বিশ্বাস ও সিপাহী মনসা রাম গুলিবিদ্ধ হলে তাদেরকে দ্রুত হেলিকপ্টারের সাহায্যে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু কনস্টেবল পরানজিৎ বিশ্বাস মারা যান। অন্য জওয়ানের অবস্থা স্থিতিশীল।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here