ইরানের নৌবাহিনীর উপ প্রধান রিয়ার অ্যাডমিরাল হামজা আলী কাভিয়ানি বলেছেন, চলতি বছরের শীতকালে তার বাহিনী ভারত মাহসাগরে নৌমহড়া চালাবে। ইরানের নৌবাহিনীর শক্তিমত্তা প্রদর্শন এবং সক্ষমতা ও দক্ষতা শক্তিশালী করার লক্ষ্যে এ মহড়া অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে বলে তিনি জানান।

অ্যাডমিরাল কাভিয়ানি বলেন, ইরানের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় মাকরান উপকূল থেকে গীভর সমুদ্র পর্যন্ত বিস্তীর্ণ এলাকায় এই মহড়া অনুষ্ঠিত হবে। তিনি শনিবার রাতে বার্তা সংস্থা ইরনাকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে আরো বলেন, আসন্ন মহড়ায় ইরানের নৌবাহিনীর নয়া সমরাস্ত্র প্রদর্শন করা হবে। বিশেষ করে মহড়ায় ‘গাদির’ শ্রেণির সাবমেরিন এবং ‘সাহান্দ’ ডেস্ট্রয়ার অংশ নেবে।

গত ২৯ নভেম্বর ‘গাদির’ শ্রেণির দু’টি সাবমেরিন ইরানের নৌবাহিনীর সঙ্গে যুক্ত হয়। এসব সাবমেরিনে অত্যাধুনিক সমরাস্ত্র ও প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে। এটি দিয়ে শত্রুর যুদ্ধজাহাজে টর্পেডো নিক্ষেপ ছাড়াও ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করা সম্ভব। এ ছাড়া, এই সাবমেরিন দিয়ে যুদ্ধের সময় লোকবল সরবরাহ করা সম্ভব।

মধ্যপ্রাচ্যের সবচেয়ে অত্যাধুনিক ডেস্ট্রয়ার সাহান্দ গত ১ ডিসম্বর ইরানের নৌবাহিনীতে যুক্ত হয়। গাদির শ্রেণির সাবমেরিন এবং সাহান্দ ডেস্ট্রয়ার সম্পূর্ণ নিজস্ব প্রযুক্তিতে তৈরি করেছে ইরান।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here