প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদা জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটদের উদ্দেশে বলেছেন, ‘দল, পক্ষ, ব্যক্তির ঊর্ধ্বে উঠে নির্বাচনী দায়িত্ব পালন করতে হবে। প্রজ্ঞা ও মেধা খাটিয়ে নির্বাচনী দায়িত্ব পালন করতে হবে। আতঙ্ক নয়, কমিশন চায় একটি আস্থার নির্বাচন।’

জনগণের আস্থা অর্জন এবং সুষ্ঠু নির্বাচন নিশ্চিত করার জন্য বিচারিক হাকিমদের নিরপেক্ষভাবে দায়িত্ব পালনের নির্দেশ দিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নুরুল হুদা।

সোমবার রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনে বিচারিক হাকিমদের ‘নির্বাচনী আচরণ বিধিমালা সংক্রান্ত ব্রিফিং’ অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, ‘বিচারক হিসেবে আপনাদের অবশ্যই স্বাধীন ও নিরপেক্ষ হতে হবে। আপনাদের বিচারকের মনোভাব প্রয়োগ করতে হবে।’

হাকিমদের সংবিধান ও আইন অনুযায়ী নিজেদের দায়িত্ব পালন করার নির্দেশ দেন সিইসি নুরুল হুদা।

তিনি বলেন, নির্বাচন কমিশন একটি সুষ্ঠু নির্বাচন আয়োজনের জন্য জাতি, সংবিধান, রাজনৈতিক দল ও জনগণের কাছে দায়বদ্ধ।

নুরুল হুদা জানান, নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ নিশ্চিত করার জন্য ৬০০ হাকিম ২৯ ডিসেম্বর থেকে ১ জানুয়ারি পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করবেন।

অনুষ্ঠানে নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার বলেন, তাদের লক্ষ্য হলো কোনো প্রার্থী যাতে ভোটের মাধ্যমে নিজেদের জয় নিশ্চিত না করা ছাড়া জাতীয় সংসদে যেতে না পারেন।

তিনদিনের এই ব্রিফিং এ আজ (১০ ডিসেম্বর) প্রথম ধাপে অংশ নেন ২১৫ জন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট। ভোট গ্রহণের আগের দিন ও পরের দুই দিন নির্বাচনী মাঠে নিয়োজিত থাকবেন তারা। তিন ধাপে ৬৪০ জন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট থাকবেন।

এসময় আরও বক্তব্য দেন নির্বাচন কমিশনার রফিকুল ইসলাম মিয়া, কবিতা খানম ও ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) শাহাদাৎ হোসেন চৌধুরী এবং ইসি সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here