চলতি বছরে ১৬০০ কোটি ডলার রেমিট্যান্স পেতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। বিশ্বব্যাংকের অভিবাসন ও উন্নয়ন প্রতিবেদনে এ তথ্য দেওয়া হয়েছে। বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে প্রবাসী বাংলাদেশিরা এই পরিমাণ রেমিট্যান্স দেশে পাঠাবেন, যা ২০১৭ সালের তুলনায় ১৭ দশমিক ৯ শতাংশ বেশি। প্রতিবেদনটি প্রকাশ করেছে বিশ্বব্যাংক।

ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শীর্ষ ১০ রেমিট্যান্স আহরণকারী দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান নবম। ২০১৭ সালেও বাংলাদেশ নবম অবস্থানে ছিল।

এদিকে চলতি বছরে দক্ষিণ এশিয়ায় রেমিট্যান্সে প্রবৃদ্ধি হবে ১৩ দশমিক ৫ শতাংশ। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দক্ষিণ এশিয়ায় বাংলাদেশ ও ভারতের দুই অঙ্কের প্রবৃদ্ধি হবে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, তবে চলতি বছরে বাংলাদেশ থেকে মধ্যপ্রাচ্যে জনশক্তি রফতানি বাড়েনি। বিশেষ করে সৌদি আরবের জাতীয়করণ নীতি এবং ভারতের সস্তায় শ্রম রফতানির কারণে এ সময়ে দেশটিতে জনশক্তি রফতানি কমেছে। যে কারণে রেমিট্যান্সের বড় উৎস সউদী আরব থেকে প্রবাহ কিছুটা কমেছে।

সেপ্টেম্বরে মালয়েশিয়া সরকারের আমদানি স্থগিত করাও বাংলাদেশের জনশক্তি রফতানি কমে যাওয়ার একটি কারণ। প্রায় আট হাজার কোটি বা ৮০ বিলিয়ন ডলারের রেমিট্যান্স নিয়ে দক্ষিণ এশিয়ায় শীর্ষে রয়েছে ভারত।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here