যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় নর্থ ক্যারোলিনা অঙ্গরাজ্যে রবিবার (৯ ডিসেম্বর) আঘাত হানা এক তুষারঝড়ে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত প্রাণ হারিয়েছেন অন্তত তিনজন। বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন অবস্থায় আছেন অঞ্চলটিতে বসবাসরত প্রায় তিন লাখের বেশি বাসিন্দা।

কর্তৃপক্ষের দেওয়া এক বিবৃতির বরাতে মঙ্গলবার (১১ ডিসেম্বর) এক প্রতিবেদনে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে ব্রিটেন ভিত্তিক সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

প্রতিবেদনে বলা হয়, নর্থ ক্যারোলিনা ছাড়াও সাউথ ক্যারোলিনা, ভার্জিনিয়া, টেনেসি এবং ওয়েস্ট ভার্জিনিয়ার দক্ষিণাঞ্চলেও ঝড়টি আঘাত হানে। তবে নর্থ ক্যারোলিনায় এ ঝড়ের তাণ্ডব সবচেয়ে বেশি লক্ষ্য করা যায়।

সেখানকার বেশীরভাগ এলাকায় প্রায় এক ফুটের বেশি উচ্চতার তুষারপাত ঘটে। ফলে বিপাকে পড়ে সড়কে চলাচলকারী অসংখ্য যানবাহন। এতে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে অনেক গাড়ি প্রধান সড়ক থেকে আশপাশে ছিটকে যায়। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত বাতিল করা হয়েছে কয়েক হাজারের বেশি ফ্লাইট।

জাতীয় আবহাওয়া অধিদপ্তরের (এনডব্লিউএস) মতে, লোকালয়ে তুষারপাতের পর ঝড়টি ক্রমশ সমুদ্রের দিকে যাচ্ছে। তবে এ অঞ্চলটিতে সপ্তাহ জুড়ে এর প্রভাব বিরাজ করতে পারে।

এ দিকে আবহাওয়াবিদ মাইকেল শিতেল বলেন, ‘ঝড়টি ধীরে ধীরে উপকূলের দিকে অগ্রসর হচ্ছে। এর তীব্রতা ক্রমশ কমে আসছে।’

অপরদিকে স্থানীয় গভর্নর রয় কুপার বলছেন, ‘রাজ্যে জরুরি অবস্থা সামনেও বহাল থাকবে। দুর্যোগ মোকাবিলায় যেকোনো পরিস্থিতিতে সাড়া দেওয়ার জন্য সর্বক্ষণ প্রস্তুত আছে নর্থ ক্যারোলিনা ন্যাশনাল গার্ড।’

উল্লেখ্য, এ নিয়ে গত দুই মাসের মধ্যে দ্বিতীয় বারের মতো বড় ধরনের তুষারঝড়ের কবলে পড়ল যুক্তরাষ্ট্র। নর্থ ক্যারোলিনায় এবারের তুষারঝড়ের প্রায় মাস খানেক আগে দেশটির পূর্বাঞ্চলে ভয়াবহ আরও একটি তুষারঝড় আঘাত হানে। এতে কমপক্ষে আটজনের প্রাণহানি হয়।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here