আস্থা ভোটের মুখে পড়েছেন বৃটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে। তার বিরুদ্ধে বাংলাদেশ সময় আজ রাতেই এ ভোট অনুষ্ঠিত হবে। বার্তা সংস্থা রয়টার্স খবর দিয়েছে যে, নিজের দল কনজারভেটিভ পার্টির সদস্যরাই আস্থা ভোটের উদ্যোগ নিয়েছেন।

ব্রিটিশ গণমাধ্যম খবর দিয়েছে, আস্থা ভোট হওয়ার পক্ষে যথেষ্ট চিঠি জমা পড়েছে। প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে অনাস্থা ভোট করতে এমপিদের কমপক্ষে ৪৮টি চিঠি জমা পড়তে হয়। সেই সংখ্যা পূরণ হয়েছে। স্থানীয় সময় বিকেল ৬টা থেকে ৮টার মধ্যে এ ভোট হওয়ার কথা রয়েছে। আইনমন্ত্রী ডেভিড গাউক বলেছেন, ভোটে প্রধানমন্ত্রী হেরে গেলে ব্রেক্সিট নিয়ে জটিলতা দেখা দিতে পারে।

ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে বেরিয়ে যাওয়ার ইস্যুতে এমন বিধ্বস্ত অবস্থার মুখোমুখি পড়তে হলো থেরেসা মে-কে। তিনি এ নিয়ে ইউরোপীয় ইউনিয়নের সঙ্গে যে সমঝোতায় পৌঁছেছেন তার ওপর মঙ্গলবার হাউস অব কমন্সে ভোট হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু তিনি নিজ দল কনজার্ভেটিভ পার্টির এমপিদেরও প্রচণ্ড বিরোধিতা টের পেয়ে ওই ভোট স্থগিত করেন। এরই মধ্যে তার বিরুদ্ধে অনাস্থা ভোটের খবর ছড়িয়ে পড়ে। আগামী ২৯ মার্চ ব্রিটেন ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে বেরিয়ে যাবে বলে কথা রয়েছে। তবে ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে বেরিয়ে গেলেও ওই সংস্থার সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সহযোগিতা অব্যাহত রাখতে চান মে।

থেরেসা মে রয়েছেন ইউরোপীয় ইউনিয়নের নেতাদের সঙ্গে সাক্ষাতের সফরে। আজ তিনি সাক্ষাত করেছেন জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মারকেলের সঙ্গে। সেখান থেকে তার যাওয়ার কথা ব্রেক্সিট সমঝোতাকারী মাইকেল বারনিয়ের ও ইউরোপীয় কমিশনের প্রেসিডেন্ট জ্যাঁ-ক্লাউডি জাঙ্কারের সঙ্গে বৈঠকে।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here