টানা তিনবারের চ্যাম্পিয়ন রিয়াল মাদ্রিদ এবারের মৌসুমের শুরু থেকেই দেখছে উত্থান-পতন। বুধবার চ্যাম্পিয়নস লিগে গ্রুপপর্বের শেষ ম্যাচে সিএসকেএ মস্কোর কাছে ৩-০ গোলের ব্যবধানে হেরেছে সান্তিয়াগো সালোরির দল। সিএসকের হয়ে গোলগুলো করেন শেলভ, শেচেনিকভ ও শিগার্ডসন।

তবে গ্রুপের শীর্ষস্থান আগেই নিশ্চিত হয়েছিল রিয়ালের। ফলে দলের সেরা তারকা লুকা মদ্রিদ, বেলসহ নিয়মিত একাদশের কয়েক জনকে বেঞ্চে রেখে একাদশ সাজান কোচ।

ম্যাচের শুরুতে অবশ্য রিয়াল মাদ্রিদ আক্রমণ চালিয়েছিল। কিন্তু এগিয়ে যাওয়ার ভাল সুযোগটি দলটি পেয়েছিল ২৩তম মিনিটে। কিন্তু সে সময় ডি-বক্সে ঢুকে একজনকে কাটিয়ে ভিনিসিউসের  নেওয়া শট ঝাঁপিয়ে ঠেকান গোলরক্ষক। ফিরতি বলে মার্কো আসেনসিওর নেওয়া জোরালো শট লাগে ক্রসবারে। কিছুক্ষণ পরই আবারও একাধিক সুযোগ নষ্ট করেন স্পেনের এই মিডফিল্ডার। সেই সুযোগে অবশ্য ৩৭তম মিনিটে এগিয়ে যায় মস্কো। এক জনকে কাটিয়ে মিডফিল্ডার আর্নর সিগুর্দসনের বাড়ানো বল ডি-বক্সে ঢুকে এক ঝটকায় এক ডিফেন্ডারকে ফাঁকি দিয়ে জোরালো শটে গোল ফিওদোর চালোভ। এর ৬ মিনিট পরই আবারও গোল হজম করে স্বাগতিকরা। এবার চালোভের কোনাকুনি শট ঝাঁপিয়ে ঠেকান কোর্তোয়া; কিন্তু বল চলে যায় শেনিকভের পায়ে। ভলিতে বল ঠিকানায় পাঠিয়ে আনন্দে মাতেন রাশিয়ার এই ডিফেন্ডার।

প্রথমার্ধের মতো বল দখলে এগিয়ে থাকলেও কাঙ্ক্ষিত জালের দেখা পায়নি রিয়াল। যে কারণে দ্বিতীয়ার্ধে কোচ সোলারি বেনজেমাকে বসিয়ে গ্যারেথ বেল ও কিছুক্ষণ পর মার্কোস লরেন্তেকে তুলে টনি ক্রুসকে নামান। কিন্তু তাতেও কাজ হয়নি। উল্টো ম্যাচের ৭৩তম মিনিটে বার্নাব্যুর ক্লাবটি ০-৩ গোলে পেছনে পড়ে সমর্থকদের হতাশ করেন। ডি-বক্সে সতীর্থের ছোট করে বাড়ানো বল ধরে কোনাকুনি শটে লক্ষ্যভেদ করেন মস্কোর মিডফিল্ডার সিগুর্দসন। শেষ পর্যন্ত ব্যবধান কমাতে পারেনি স্বাগতিকরা।

এ ম্যাচ হারলেও ৬ ম্যাচে ৪ জয়ে ১২ পয়েন্ট নিয়ে ‘জি’ গ্রুপ এর শীর্ষে থেকে চ্যাম্পিয়নস লিগের নকআউটে উঠেছে রিয়াল মাদ্রিদ। যেখানে তাদের সঙ্গী রোমার পয়েন্ট ৯।

 

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here