আগামী ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া জাতীয় নির্বাচন উপলক্ষে ২৪ ডিসেম্বর থেকে ১০ দিনের জন্য সশস্ত্র বাহিনী মোতায়েন করা হবে।

নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ বৃহস্পতিবার রাতে এ তথ্য জানিয়েছেন।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘২৪ ডিসেম্বর থেকে ২ জানুয়ারি পর্যন্ত স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে সশস্ত্র বাহিনী মোতায়েন রাখা হবে।’

রাজধানীর নির্বাচন ভবনে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কেএম নুরুল হুদার সভাপতিত্বে নির্বাচনের নিরাপত্তা নিয়ে আয়োজিত সভায় ইসি এই সিদ্ধান্ত নেয়।

পুলিশ, র‌্যাব, বিজিবি, আনসার-ভিডিপি, গোয়েন্দা সংস্থা ও সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের ঊর্ধ্বতন প্রতিনিধিদের পাশাপাশি ৬৬ রিটার্নিং কর্মকর্তা ও সব জেলার পুলিশ সুপাররা (এসপি) সভায় অংশ নেন।

হেলালুদ্দীন বলেন, বিজিবি সদস্যদের ২২ ডিসেম্বর থেকে মোতায়েন করার জন্য ইসি সচিবালয় কমিশনে একটি প্রস্তাব পাঠিয়েছে, তবে এবিষয়ে শনিবার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

আরেক প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, অনলাইনে অপপ্রচার ও গুজব ছড়ানো বন্ধ করতে নির্বাচনকালে একটি নির্দিষ্ট সময়ের জন্য মোবাইল নেটওয়ার্ক ধীর গতির করে ফোর-জি থেকে টু-জিতে নামিয়ে আনার একটি প্রস্তাব সভায় উত্থাপন করা হয়েছে। তবে ইসি এবিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত নেয়নি।

ইসি কর্মকর্তাদের তথ্য অনুযায়ী, নির্বাচনের দিন আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যদের পাশাপাশি সাত লাখের অধিক নিরাপত্তা কর্মী মাঠ পর্যায়ে দায়িত্ব পালন করবেন।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here