সদ্য সমাপ্ত ওয়ানডে সিরিজে বলতে গেলে নিজ দলকে একা হাতেই টেনেছেন উইন্ডিজ উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান শাই হোপ। তিন ম্যাচের সিরিজটা ২-১ ব্যববধানে হারলেও অসামান্য পারফরম্যান্সের কল্যাণে সিরিজ সেরার পুরস্কারটা ঠিকই বাগিয়ে নিয়েছেন হোপ। কিন্তু বিপত্তিটা বেঁধেছে শেষ ওয়ানডেতে পাওয়া তার চোটেকে ঘিরে। তবে হোপ টি-টোয়েন্টি সিরিজ মিস করবেন না বলে জানিয়েছেন সফরকারী দলের অধিনায়ক কার্লোস ব্র‍্যাথওয়েট। বলেছেন ‘জীবিত থাকলে অবশ্যই খেলবে সে’।

শেষ ওয়ানডেতে প্রথম ইনিংসে ব্যাট করতে নেমেছিলো ক্যারিবিয়ানরা। যেখান দলের হয়ে ওপেন করতে এসে নির্ধারিত ৫০ ওভারই উইকেটে কাটিয়ে এসেছেন শাই হোপ। তবে এর মধ্যেই একবার আঘাত পান ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান। ইনিংসের ৫০তম ওভারে টাইগার পেসার মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনের করা একটি বাউন্সার আঘাত হানে হোপের হেলমেটে। তাৎক্ষণিকভাবে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয় তাকে।

পরে হোপ সে ওভারটি পুরোটা খেললেও নামতে পারেননি ফিল্ডিংয়ে। তার বদলে উইকেট কিপিং করেন শিমরন হেটমেয়ার। তাইতো টি-টোয়েন্টি সিরিজ শুরুর আগে স্বভাবতই প্রশ্ন জাগে, দলের সেরা ব্যাটসম্যানকে প্রথম ম্যাচ থেকেই পাচ্ছে কিনা সফরকারীরা। হোপের না থাকার বিষয়ে সব শঙ্কা উড়িয়ে দিয়েছেন ক্যারিবীয়দের টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক কার্লোস ব্র‍্যাথওয়েট। সাফ জানিয়ে দিয়েছেন যদি জীবিত থাকে, তাহলে যেকোন অর্থে প্রথম ম্যাচটি খেলবে হোপ।

ব্র‍্যাথওয়েট বলেন, ‘হোপ দুর্দান্ত ব্যাটিং ফর্মে আছে। মাত্রই পিঠেপিঠি সেঞ্চুরি উপহার দিয়েছে। এমন যদি হয় যে তাকে স্ট্রেচারে করে মাঠে নেমে খেলতে হবে, দরকার হয় সেই স্ট্রেচার আমি বয়ে নিয়ে যাব। তবে আশার কথা হলো, সে ভালো আছে এবং দারুণ চনমনে আছে। অনুশীলন করছে, শতভাগ ফিট হওয়ার কাছাকাছি আছে। যদি সে জীবিত থাকে, তাহলে অবশ্যই খেলবে।’

এসময় দুই দফায় ম্যাচের সময় এগিয়ে আনায় বাংলাদেশের সুবিধাই হয়েছে বলে জানিয়ে ব্রাথওয়েট বলেন, ‘ম্যাচ দুপুরে হবে বিধায় শিশিরের প্রভাব কম থাকবে। এটা বাংলাদেশের পক্ষে কাজ করবে। আমাদের পেসাররা উইকেট থেকে বাড়তি সুবিধা পাবে না। তবে এটা তো আর আমাদের হাতে নেই। আমরা ঘুরে দাঁড়াবো। নিজেদের সেরাটা খেলে জয়ের চেষ্টা করবো।’

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here