দেশের উন্নয়ন অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সবাই একসঙ্গে কাজ করার অঙ্গীকার করেছেন ব্যবসায়ীরা।

বুধবার (১৯ ডিসেম্বর) সকালে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এফবিসিসিআই-এর আয়োজনে ব্যবসায়ী সম্মেলনে এ অঙ্গীকার করেন বিভিন্ন সংগঠনের প্রতিনিধিরা।

ব্যবসাবান্ধব পরিবেশ তৈরি করাই আওয়ামী লীগের প্রধান লক্ষ্য বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, দুর্নীতি করে নিজের জীবনমান উন্নয়ন করা নয়, ব্যবসাবান্ধব পরিবেশ তৈরি করাই আওয়ামী লীগ সরকারের লক্ষ্য।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমি কী পেলাম না পেলাম সেটা নিয়ে চিন্তা করি না। আমি চিন্তা করি বাংলাদেশের মানুষের জন্য কী করে গেলাম, কী রেখে গেলাম। কীভাবে বাংলাদেশের মানুষের জীবনমান উন্নয়ন হয় সেদিকে লক্ষ রাখা।

তিনি বলেন, গ্রামীণ জনগণের সচ্ছলতা বাড়াতে চায় আওয়ামী লীগ সরকার। এ জন্য যা যা প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ দেখানো দরকার সরকার তা করবে। আমরা চাই বাংলাদেশ হবে একটি শান্তিপূর্ণ দেশ।

শেখ হাসিনা বলেন, আগামী ৩০ ডিসেম্বর নির্বাচন। আমরা চাই জনগণ স্বতস্ফূর্তভাবে ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করুক। যেনতেনভাবে নয়, জনগণের ভোটেই আবার ক্ষমতায় আসতে চাই। নির্বাচনে যেন শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বজায় থাকে সেজন্য সবার সাহায্য চাই।

বাংলাদেশ নিয়ে নিজের পরিকল্পনার কথা জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, আমাদের অনেক পরিকল্পনা রয়েছে। জাতির পিতা বাংলাদেশকে প্রাচ্যের সুইজারল্যান্ড হিসেবে গড়ে তুলতে চেয়েছিলেন। বাংলাদেশ হবে প্রাচ্যের সুইজারল্যান্ড।

বিষয়টির ব্যাখা দিয়ে তিনি বলেন, সুইজারল্যান্ডের ভৌগলিক অবস্থানটা যদি দেখেন তাহলে দেখবেন ইউরোপের একদিক থেকে আরেকদিকে যেতে গেলে সুইাজারল্যান্ডকে ব্যবহার করতে হয়। একটা শান্তিপূর্ণ দেশ। বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশকেই সেভাবে গড়ে তুলতে চেয়েছিলেন।

বঙ্গবন্ধু প্রাচ্য ও পাশ্চাত্যের সেতুবন্ধন রচনা করতে চেয়েছিলেন উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, তার জন্য প্রয়োজন অবকাঠামোগত উন্নয়ন। সে উন্নয়নের কাজও আমরা হাতে নিয়েছি।

জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাস, মাদক ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত থাকবে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাস থাকলে দেশে কোনো উন্নতি হয় না। কাজেই আমরা চাই দেশে শান্তিপূর্ণ অবস্থা থাকুক।

বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে ব্যবসায়ীদের সম্মেলন শুরু হয় জাতীয় সঙ্গীতের মধ্যদিয়ে।

এরপর একে একে ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দের বক্তব্যে ফুটে উঠে আগামীর সমৃদ্ধ বাংলাদেশের প্রত্যাশা। সম্মেলনের স্লোগান “শান্তি ও সমৃদ্ধির পথে বাংলাদেশ”।

এফবিসিসিআই সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন বলেছেন, আমার সামনে যারা বসে আছেন। আপনারাই বাংলাদেশকে বদলে দিতে পারেন। আর এর দিক নির্দেশনা দিবেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেই সঙ্গে রাজনীতিতে কোন জ্বালাও পোড়াও নৈরাজ্য দেখতে চাই না।

সহস্রাব্দ লক্ষ্যমাত্রা অর্জন, পদ্মাসেতু, মেট্রোরেলের মত বড় প্রকল্প, খাদ্যে স্বংয়সম্পূর্ণ, কিংবা বিদ্যুৎ জ্বালানি সবক্ষেত্রে বাংলাদেশের অগ্রগতি চোখে পড়েছে গোটা বিশ্বে। সম্মেলনের ভিডিও বক্তব্যে জাতিসংঘের মহাসচিব ও বিশ্বব্যাংকের প্রেসিডেন্টের অর্থনৈতিক অগ্রগতির প্রশংসা করেছেন বাংলাদেশের।

আগামী নির্বাচন হবে প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে শান্তি সমৃদ্ধির দেশ গড়ার মাইলফলক এমন প্রত্যাশা ব্যবসায়ীদের।

সম্মেলনে উপস্থিত আছেন এফবিসিসিআই সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন, প্রবীণ ব্যবসায়ী নেতা মাহবুবুর রহমান, প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি উন্নয়ন বিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান, রোকেয়া আফজাল হোসেন, মীর নাসির হোসেনসহ অন্যান্য ব্যবসায়ী নেতারা।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here