মহামান্য হাইকোর্টের নির্দেশনা আছে। নির্দেশনা আসার কারণে আমাদের কিছু ক্ষেত্রে একোমোডেট (সমন্বয়) করতে হচ্ছে। কারণ আপনারা দেখেছেন হিরো আলম পর্যন্ত হাইকোর্ট দেখায়, এ কথা বলেন নির্বাচন কমিশনের সচিব হেলালুদ্দীন আহমেদ।

বুধবার (১৯ ডিসেম্বর) সকালে নির্বাচন কমিশনের ইটিআই ভবনে নির্বাচনের দিন সফটওয়্যার সংক্রান্ত ইলেকশন ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম (ই এম এস), ক্যান্ডিডেট ইনফরমেশন ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম (সিআইএমএস) ও রেজাল্ট ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম (আরএমএস) প্রশিক্ষণে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন তিনি।

ইসি সচিব বলেন, ও তো (হিরো আলম) স্বতন্ত্র প্রার্থী। রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে যখন গেল তার নমিনেশন বাতিল হলো। আপিল করলে সেখানেও কমিশন বাতিল করেছে। পরে হাইকোর্টে প্রার্থিতা ফিরে পেয়েছেন। তাকেও প্রতীক দেয়া হয়েছে। এ রকম ৫০ জনের ওপরে স্বতন্ত্র প্রার্থী রয়েছে। হাইকোর্ট এখন বলছে একে এটা না ওই প্রতীক দেন। এসব নিয়ে আমরা উদ্বিগ্ন ও ব্যতিব্যস্ত।

এসময় তিনি আরো বলেন, এখনও অনেক আসনে প্রার্থী চূড়ান্ত হয় নাই। আরও কিছু হয়তো পরিবর্তন হবে। যেখানে প্রার্থীতা চূড়ান্ত হয়ে গেছে সেখানে আমরা ব্যালট ছাপিয়ে ফেলবো। কারণ আমরা চাই এক সপ্তাহ পূর্বে ব্যালটগুলো মাঠে চলে যাক। যেখানে একটু সমস্যা আছে সেখানে ব্যালট পরে পাঠাবো।

ভোটের দিন ইন্টারনেটের গতি কমানোর চিন্তাভাবনা করছে নির্বাচন কমিশন (ইসি) বলে জানিয়েছেন কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন আহমেদ। তবে ফলাফলের সময় গতি স্বাভাবিক থাকবে বলে জানান তিনি।

প্রশিক্ষণার্থীদের অসুবিধা হবে বলে সমস্বরে ইসি সচিব বলেন, রেজাল্ট পাঠাবেন ৫টার পর থেকে তাই ৫টার পর থেকেই ইন্টারনেটের গতি স্বাভাবিক থাকে তাহলে তো সমস্যা নেই। অর্থাৎ বিকেল ৪টার পর ফুল স্পিডে ইন্টারনেট থাকবে।

অনুষ্ঠানে ইটিআই-এর পরিচালক মোস্তফা ফারুকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here