আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে উৎসবমুখর পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে বলে বৃহস্পতিবার মন্তব্য করেছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নুরুল হুদা।

‘সবদল এবং সাধারণ মানুষের মধ্যে এক ধরনের উৎসবমুখর নির্বাচনী পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে। দৃঢ়তার সাথে বলতে পারি, সুষ্ঠুভাবে ভোটগ্রহণ হবে’, বলেন তিনি।

নির্বাচন প্রশিক্ষণ ইন্সটিটিউট আগারগাঁওয়ে সকালে নির্বাচনে ভোট গণনাকারী কর্মকর্তাদের সফটওয়্যার সংক্রান্ত প্রশিক্ষণ কর্মশালয় সিইসি এসব কথা বলেন।

আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে যারা ভোট গণনা এবং সফটওয়্যার সংক্রান্ত কাজে নিয়োজিত থাকবেন তাদের সর্বোচ্চ সতর্ক থাকার নির্দেশ দেন কেএম নুরুল হুদা।

নির্বাচনে সংশ্লিষ্ট সর্বোচ্চ সংখ্যক লোককে এবার প্রশিক্ষণের আওতায় আনা হয়েছে জানিয়ে সিইসি বলেন, রাজনৈতিক নেতাদের পোলিং এজেন্টদেরও প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হয়েছে। যেনো তারা তাদের অধিকার ও দ্বায়িত্ব সম্পর্কে সচেতন থাকেন। এসব কিছুই সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য।

ভোট কেন্দ্রে দায়িত্বরত কর্মকর্তাদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ভোটকেন্দ্র থেকে কোনো বিষয়ে সরাসরি নির্বাচন কমিশনের কাছে অভিযোগ না করে রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে অভিযোগ করলে দ্রুত সমাধান সম্ভব। তাই কোনো অভিযোগ থাকলে রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে জানানোর আহ্বান জানান তিনি।

সিইসি বলেন, বছরব্যাপী নির্বাচনী প্রস্তুতির ফসল চলে যাবে ফলাফল গনণাকারীদের হাতে। তাই সামান্য ভুলেও দুর্ঘটনা ঘটে যেতে পারে। যারা সফটওয়্যারে ফলাফলযুক্ত করবেন তাদেরকে তাই সর্বোচ্চ সতর্ক থাকার তাগিদ দেন তিনি।

সবদল এবং সাধারণ মানুষের মধ্যে এক ধরনের উৎসবমুখর নির্বাচনী পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে দাবি করে নির্বাচন কমিশনার বলেন, দৃঢ়তার সাথে বলতে পারি সুষ্ঠুভাবে ভোটগ্রহণ হবে। তাই যার যার জায়গা থেকে সঠিকভাবে দায়িত্ব পালনের জন্য আহ্বান জানাই।

অনুষ্ঠানে নির্বাচন সচিব হেলাল উদ্দিন আহমেদসহ সফটওয়্যার প্রশিক্ষণরত কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

**রাজনৈতিক, ধর্মবিদ্বেষী ও খারাপ কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন।**

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here